উৎসর্গ : ( সুবর্ণাকে )

তুমি এমন কিছু কথা বল
যে কথা শুনে আমার চোখে আসে জল,
তুমি এমন কিছু ভাষার গাছ বুনো
যে গাছে ফলে আমার কষ্ট নামের ফল ।

তুমি এমন কিছু আচারণ করো
যেটা বিন্দু মাত্র তোমার কাছে,
তুমি এমন ভাবে ব্যথা দাও
যা না সয় আমি নামের আমার গাছে ।

তুমি এমন একটি শব্দ বল
যে শব্দটি আমি শুনতে চাইনা,
তুমি তোমার অতীত টেনে আনো বারবার
যা কখনও আমি জানতে চাইনা ।

তুমি আমায় এমন করে কষ্ট দাও
যেন আমি তোমার থেকে সরে যাই দূরে,
তুমি আমায় এমন ভাবে ব্যথা দাও
যেন আমার অন্তর নীরবে যায় পুড়ে ।

তুমি আমায় এমন ভাবে ঘৃণা করো
যেন আমি তোমার বড় শত্রু সব থেকে,
যখন তখন চেষ্টা করো নিতে আমার প্রাণ
যখন তখন আমার কথাতে যাও বেঁকে ।

আমি যে কেঁদেছি কাল সারারাত
ভেবেছি এ আমার কার সাথে হলো দেখা,
আমি যে স্রষ্টাকে মনে প্রাণে বিশ্বাস করি
হয়তো বা, আমার কপালে তোমাকেই ছিল লেখা ।

ভালবাসি তোমায় চিরদিন ভালবাসবো তোমায়
ভেবোনা আমি তোমাকে সে কারণে বিন্দুমাত্র কষ্ট দেবো
দেবো আমার কষ্টের সামান্যতম কিছুটা ভাগ,
তুমি দিও ব্যথা দিও কষ্ট এ দেহে প্রাণ আছে যতো দিন
আমার প্রতি তোমার যে ঘৃণা;সে ঘৃণাতে এ হৃদয়ে এঁকে দিও তুমি
শুকনো নদীর মতো কষ্ট নামের আরো….অনেক হাজারটা দাগ ।