স্বপ্নের রঙিন ক্যারাভানে পৃথিবীর সব পথ ঘুরে
কুয়াশা-শাড়ির ভাঁজ খুলে বৃষ্টি-পূর্ণিমায় হঠাৎ করে
অন্ধস্রোতে জানা-শোনা, ভালোলাগা, ভালোবাসা
যেনো পৃথিবীর অন্ধকার অন্তে চির-ঊষার প্রত্যাশা।

হাজার বছর হৃদয়ের পথচলা- তবুও পথশেষে অনন্ত সঙ্গীত
স্বর্ণালী সুমাত্রার দ্বীপ ঘুরে পায়নি ব্যস্ততম আলোর সৈকত
জাফরান, মেহেদীর দ্বীপে তুমি আর আমি- বর্ষণমুখর দিন
বন্দর থেকে বন্দরে ক্লান্ত পথচলা- তবুও আকাশ সূর্যবিহীন।

একদিন অগণিত তারকার পশরা নিয়ে যে আকাশ মেলেছিলো হৃদয়
তিমিরের বুকে আয়োজন স্বপ্নের রং; ভালোবাসা নেই- শুধু হারানোর ভয়।

সেদিন কালবৈশাখীর ঝড় ছিলো- রুদ্র উন্মাত্তাল ঝড়ো বাতাস
বৃক্ষের শরীর কম্পমান অবিরাম- পাতাগুলো হাওয়ার ডানায় অবিনাশ
বিক্ষিপ্ত উড়ছিলো তান্ত্রিকের তন্ত্র-মন্ত্রের মতো পৃথিবীর সব প্রেম-সুন্দর মন
বরষার দুর্যোগের দিনে নিঃসঙ্গ চিরযাত্রা-জোনাকিরাও পাখা মেলেনি সেদিন।

আমার প্রেম-বিরহকাতর মন আজ পড়ে আছে নিভু নিভু সূর্যের হেয়ালিভরা অাঁধারে
তবুও আত্মার কালশিটে সুবর্ণ বিকেলে- বর্ষণমুখর সন্ধায়- ভরা পূর্ণিমার রাতে- মনে পড়ে তারে।