অবাক হয়ে তাকিয়ে দেখি , মানবতার কথা বলে যে

তার পদদতলে মানবতা লুণ্ঠিত হয় বারবার

গতকাল ছিলে তুমি রাজাধিরাজ, বিবর্ণ দেহে আজ তুমি

লেবাস বিহিন লাশ।

 

শরীরের ক্ষতে রক্তের শুকনো দাগ , যেন এক লাওয়ারিশ

দাফনের তাড়া নেই , একদল মাছির উল্লাসিত নৃত্য

সমাধির স্থান নেই ধরা'র মাঝে যেন অবাঞ্ছিত।

 

বিস্তীর্ণ বালুকাময় দুর্গম মরূদ্যানে বয়ে নেয় তোমার

শবদেহ কিছু মিথ্যায় লালিত নরপশুর ছোট দল।

গর্জে উঠে আম্বর বিদ্যুৎ চমকায় , ভেদ করে আঁধার

পাশে কুল কিনারাহীন ভয়াল পারাবার।মরুর বুকে রুপালী                             

চাদরে ঢেকে দেয় শসী।দুরাকাশের উপর থেকে তাকিয়ে থাকে

বিধাতা বিশ্বময় । নিঃশ্বাস ছিল যতক্ষণ ভয়ে তটস্থ ছিল ততক্ষণ ।

 

নিঃশ্বাস নেই তবু ভয় থেমে নেই, আতঙ্ক মারে থাবা।রাতের

আঁধারে শেষ কৃত্য হয় ,বিধাতাই জানে সত্যতা।

হৃদয়ের  সমাধি ছিন্ন করবে কোন শকুন। সে রবে অবিনশ্বর ।