তুমি কোথায় চলে গেলে আমাকে একা ফেলে?

কাছে থেকেও দূরে আছো, কি নিশ্চিন্তে হেসে খেলে!

যখনই দেখি তুমি নেই, শূন্য ঘরে আমি একা-

সমস্ত বাস্তবতা ঘিরে রয়, তবুও অনেক হয় ধোঁকা!

শূন্য ঘরে হাত মেলে কিভাবে পাব তোমার স্পর্শ?

কেন ভুলে গেলে তুমি? তুমি যে আমারই অংশ!

আমি যেদিকে তাকাই, সেখানেই দেখি তোমার ছায়া

যদি নাইবা থাক কাছে, তবে কেন দিলে মিছে মায়া?

ভুল বুঝো না-

তোমাকে ভালবাসায় আমার নেই কোন খাঁদ

তোমাকে আটকাতে আমি বিছিয়ে দেব

আমার প্রেমের ফাঁদ।

তবুও দূরে থাকবে?

আমার একাকীত্বের যন্ত্রণা তুমি কি মনে রাখবে?

শূন্য ঘরে আমি যে বড় একা-

প্রতিক্ষণে মনে হয়, তুমি নেই কেন?

কেন পাই না তোমার দেখা?

ভাসমান খড়কুটোর মত

অজানার পথে তোমাকে খুঁজতে সাঁতার দিয়েছি কত!

যদি তুমি আসো-

শুধু একবার বলে দিও- তুমি আমায় ভালবাসো!

একটু শোন প্রিয়-

আমার যা আছে, সবই নিয়ে আমায় নিঃস্ব করে দিও!

যেদিন দেখা পাব-

তুমি সাড়া না দিলেও আমি তোমায় ডেকেই যাব।

আমার শূন্য ঘরে

তোমাকে নিয়ে লেখা ককিতাগুলো

হতাশায় গুমরে মরে।

বালির স্রোত এসে ভেঙ্গে দিয়ে যায়

পানির তৈরি চর-

তুমি ছাড়া সব কানায় কানায় পূর্ণ-আমারি শূন্য ঘর।