যেই না দাঁড়াও এসে উল্কায় চড়ে আমার সমুখে

লহমায় ত্বক ফুঁড়ে ঢুকে যায় রৌরব জ্বালা

সেদ্ধ হই, শুধুইসেদ্ধ হই, না হই তরল না ছাই।

এ কেমন লেলিহান শিখা তুমি,

এ কেমন লাউডগার লিকলিকে জিভ?

 

আমাকে গড়িয়ে নেয়, নেয় টেনে হিস্‌ হিস্‌ তোমার ধ্বনি

ঝড়-বায়ু-খরা-বরষায় তোড়েপড়া কুটোর মতন।

কোথা হতে ডাকো তুমি -অগ্নি, বায়ু, ঈশান, নৈঋত?

জলে নাকি স্থলে, নাকি হাওয়ায় হাওয়ায়

বেলা-অবেলা-সারাবেলা তোমার তপ্ত আবাহন।

 

আমাকে পোড়াও তুমি দাহ্যদহনে

এ কেমন দাবানল – থাকো মাঝামাঝি দেখার না-দেখার

স্পর্শের অল্প দূরে, নয় ছোঁয়ার অনেক তফাতে।

ক্রমশ অঙ্গার হই, নয় ভস্ম না হই দ্রবণ

অদৃশ্য সুতোর টানে কেবলই পতঙ্গ হই আরক্তিম অনলে।

 

৯ ডিসেম্বর ২০১৭