আমাবস্যারা হামাগুড়ি দিয়ে চলে আসে একবারে বুকের কাছে
আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে থাকা দুঃখগুলোর মতো ।
আর সুখটা? ঐ যে দুরের এক বিন্দু আলোর মতো
মই বেয়ে চাঁদ’টা ছুঁতে চাওয়ার মতো
ঝি ঝি ডাকা ত্রস্ত রাতে কুয়াশার ঘোরে পথ ভোলা পথিকের মতো
বৃত্তের কেন্দ্রে পড়ে থেকে পরিসীমা খুঁজে হাতড়াতে থাকা অসহায়ত্বের মতো ।
হায় সুখ, আড়ি নাও তুমি
বন্ধু হতে একবারও এলে না যখন কাছে
শত্রুর শত্রু হও তুমি আমার, না পাওয়ার অতল দিঘীর
ঘোলা জলের অভিসম্পাতে কাটুক তোমার সময়
আমার দুঃখগুলোর কোলাকুলিতে আড়স্টতা ভেঙে
পরমাত্মার আত্মীয় হউক বুকের কষ্টগুলো, সেই ভালো।
নেই নেই বলে সুখ, অনু-পরমানু বিস্ফোরিত করে
ইলেকট্রনের খোঁজে আর যাবো না বিগ্রহে ।
কষ্ট, আমার কষ্টরা…
এই যে হাত বাড়িয়েছি বন্ধু হতে
আমাকে লীন করো তোমাদের মাঝে
তোমরাই আমার সুখ।