পরী,অনেকটা পথ পেরিয়ে আজ আমি
তোমার চেনা শহরের রাস্তায়।
যে চোখের চাহনিতে
কোন বখাটে কবি,হারিয়ে ছিল তার সমস্ত কবিতার পংক্তি।
সেই বখাটে কবি,আবার নতুন কিছু কবিতার আশায়
আজ আবার,তোমার চির চেনা শহরের রাস্তায়।

একি!তোমার বাড়ীর অলিতে-গলিতে,
হাজারো যুবকের ভীড়।
কতশত কবিতা আর রূপের বনর্না তোমায় নিয়ে
কেবল,তোমাকে পাবার আশায়।
তবে কি পরী তুমি ও নাম লিখিয়েছ
সস্তা কবিতা আর সস্তা ভালবাসায়?
বখাটে কবি থমকে দাড়াঁয়,তবে কি সে ও নাম লিখাবে
হাজারো যুবকের মিছিলে,
তোমাকে পাবার আশায়?

বখাটে কবি নীরবে পালিয়ে আসে
তার চির চেনা শহরে।
যেখানে অগোছালো কিছু পংক্তিবিহীন কবিতা
আর আছে কিছু অপূর্ণর স্বপ্ন।
বখাটে কবি মুখ ফিরিয়ে নেয় ঘৃনায়,
তার লাল পরী ও কবিতার পান্ডুলিপি থেকে।
আর পিছনে থেকে যায় বখাটেপনা প্রশ্ন
ও কিছু অনাকাঙ্খিত উত্তর।