তোমাদের ছিলও একাত্তর, আমাদের আছে তেরো,
তিরিশ লক্ষ জীবনের ঋণ শুধতে কি কেউ পারো?
দেখতে চায়না আর বাঙালি হায়েনার মুখে হাসি,
বিচারপতি, বিচার কর, রাজাকারে দাও ফাঁসি।

ঝরিয়েছে কত মায়ের অশ্রু, কেড়েছে বোনের হাসি,
আজ তেরো তে একটাই দাবী, রাজাকারে দাও ফাঁসি।
পদ্মা-মেঘনা বইছে আমার ভাইয়ের রক্ত আজো,
সেই লহু দেয় সাক্ষ্য, তবুও আর কি সাক্ষী খোঁজো?

বেয়াল্লিশটি বছর গিয়েছে, নাটক দেখেছি ম্যালা,
জনতা-জোয়ার উঠেছে শা’বাগে, বুঝবে এবার ঠেলা।
পিতা এসেছে শিশুটিকে নিয়ে, বোনটির সাথে ভাই,
কণ্ঠে সবার একটাই দাবী, দালালের ফাঁসি চাই।

শপথে দৃপ্ত, বজ্রমুষ্টি, জনতা হয়েছে এক,
হায়েনার দল, পালালি কোথায়? শাহবাগে এসে দেখ।
জেগেছে শা’বাগ, জেগেছে বাঙালি, জেগেছে বাংলাদেশ,
তুই রাজাকার পালাবি কোথায়, দেখে নেবো তোর শেষ।

আমাদের বেঁচে খেয়েছে কতনা রাজনীতিজীবী দল,
সব ছুড়ে ফেলে আজকে শা’বাগে শুধু মানুষের ঢল।
সেই মানুষের একটাই দাবী, আর কোন চাওয়া নাই,
দেশের শত্রু তুই রাজাকার, তোদের ফাঁসি চাই।