আজ মাঝরাতে গভীরে
স্বপ্নের ভেতর খোকা খোকা বলে
মা আমাকে মমতা ভরা কন্ঠে ডাকলো।
তখন সাত আসমানের উপর থেকে
প্রশান্তময় জান্নাতের দরজাগুলো খুলে গেলো
জগত ঘুমিয়ে আছে, ঘুমিয়ে আছে
পশু পাখি বৃক্ষ নদী আর মানুষ!
মা শুধু একা একা জান্নাতের দরজায় দাঁড়িয়ে
আমাকে বলল কাছে এসো, এই সবুজ বাগানে।
চিরন্তন অমর অতীন্দ্রিয় সত্তার সাথে
বিশ্বাত্মার পবিত্র প্রতিরূপে প্রতিভাসে
মানবাত্মা পরমাত্মার এক অভিন্ন পথে
মা যেন মিশে আছে জান্নাতের রঙে!
ঐশী স্বভাব ঐশী গুণে পরিপূর্ণ আল্লাহ এক ধ্যানে।
আত্মসাধন এক ও বহু উভয় মিলে মিশে
প্রেমের মাঝে আপন তিনি প্রেমে জাগরণে।
বিশ্ব প্রজ্ঞা মাতা আমার নিগূঢ় আল্লাহ পথে
অভিব্যক্ত মানুষরূপে পরিপূর্ণ তার প্রকাশ
তাই তোমার পায়ের শেকড়ে খোলে জান্নাতেরই দ্বার।
হঠাৎ স্বপ্নের ভেতর জান্নাতের দরজাগুলো খুলে গেল
তখন আমি মরমি প্রেমের গান শুনতে পেলাম মধুর সুবাসে
সূক্ষ্ম জ্যোতির্ময় ঝলক আলোর নূরে
বিচিত্র রঙের ভেতর আল্লাহ যেন গুপ্তের চেয়ে গুপ্ত
শ্যামল পাখিগুলো উড়ে গেলো ঝাঁক ঝাঁক
দক্ষ শিল্পীর নিপুণ আঁকা মহাদর্শনের পথে!
স্বপ্নবীজ বিপুল প্রেম সনাতন সজিব রঙে
রাত শেষ পৃথিবী জেগে উঠেছে
ফুলের গন্ধ মেশানো নদীর বাতাসে।
হঠাৎ মুয়াজ্জিনের আযানে স্বপ্নের ঘুম ভেঙে গেলো
মা তখন আল্লাহ প্রেমে মগ্ন হলো গভীর এক ধ্যানে
আমি তখন হাঁটতে লাগলাম মসজিদের পথে
মা বলল খোকা তুমি মগ্ন থাকো আল্লাহ রসূল প্রেমে।