একটা যদি আলাদীনের প্রদীপ থাকতো আমার
ফিরে যেতে পারতাম আজ হতে বহু অতীতে;
আমার শৈশবের সেই সব সোনা ঝরা দিনে,
দিন কাটতো ঝিলে বিলে আর বনে বাদাড়ে।

আমার শৈশব, আমার কৈশোর, আমার ছেলে বেলা
হারিয়ে যায় মন পবনের পালে লাগে হাওয়া;
স্মৃতির দোলায় বারে বারে পেছন ফিরে চায়,
জানি না সেই বন্ধু বান্ধব এখন কে কোথায়!

দুপুর বেলার ঘুমটা ফাঁকি দিয়ে হোতাম উধাও
ইচ্ছে পাখি উড়াল দিতো কোথায় কোথায় যেতাম;
মায়ের শাসন বাবার বকুনির ভয়ে ফিরতাম
সন্ধ্যের আগে, লক্ষী আমি পড়ার টেবিলে।

শৈশবটা ছিলো বাঁধনহারা অন্য এক জীবন
চিন্তা-ভাবনাহীন, ছিলো না কোন কঠিন দায় ভার;
জীবন সায়াহ্নে তাই, মন সেই উলটো রথে ধায়
বারে বারে তাই শৈশব অনুভব ছুঁয়ে যায়।