ওরে ভোরের সূর্য
আর কত কাঁদবি পৃথিবীর পা ধরে
এক মুঠো ভাতের জন্য ?


ফেটে চৌচিড় মৃত্তিকার সবটুকু রস পান করে
মৃত্তিকার সবুজ কন্যাকে জ্বালানী দেবার লোভ দেখিয়ে
ধর্ষণ করেও মেটেনি তোর ক্ষুধা ?


তোর কত ক্ষুধারে আমি বঝিনা
জনসাধারণের সামনে চোখ খুলে
কি ভাবে মিথ্যে কথা বলিস ?



তুই কিভাবে বুঝবি ওদের কষ্ট
কটা রাত থেকেছিস তুই
পলেথিন ব্যাগ দিয়ে বানানো কুঁড়ে ঘরে ?



খেয়েছিস কি কখনো তুই
ধনিদের ছুঁড়ে ফেলা খাদ্য গুলো
কুকুর,বিড়ালের মুখ থেকে ছিনিয়ে ?



তুমি কি হরতালে না খেয়ে থেকেছ ?
ফুতপাতের মানুষের সাথে
এক টুকরো রুটি দিয়ে ইফতার করেছ ?



যেখানে মানুষের খাদ্য জোটেনা
একটু হাবিব সাবান মাখার জন্য
পিতার হাতে খুন হয় পুত্র-কন্যা



সেখানে তুমি জনগনের টাকা দিয়ে্দি
ডাস্টবিনের নাম নুংরা ফেলুন মুছে ময়লা ফেলুন লিখতে ব্যাস্ত
তোমার কি তা সাজে ।


ওই সূর্য এই ছড়া টি পড়েছ ?
আগডুম বাগডুম ঘোড়াডুম সাজে
.......................................



ওই সূর্য এই কবিতা টি পড়েছ ?
ক্ষুধার ছাদনা তলায় হয়না বিয়ে আমার ভাই
পেট ভরে খেয়ে বলে ওরা যৌতুক চায় ......
জনগণকে ভালবাসতে কি তোমার যৌতুক চায় ?