সুখের আকাশে তিলে তিলে জমে গেছে
দুঃখ নামক বিলাসিতার ঘন মেঘ।
সেই সাথে উষ্ণ শিশির বিন্দুগুলো একজোটে
কপালে দেয় প্রবাহিত স্বেদ-তিলক!
আমি হাতে ভাঙ্গা চায়ের কাপ নিয়ে
স্লোগান দিয়ে গলা ফাটাই-
‘স্বাধীনতা চাইগো স্বাধীনতা’!

পীচের রাস্তার উত্তাপের সাথে সীসার টুকরাগুলো
একে একে রচনা করতে থাকে আমার বিধিলিপি-
অনেক রঙে, নানা ঢঙে; কত বর্ণে!
দুহাত উড়াই স্বাধীনতার ধূলারাশি
আহত কবুতরগুলো ডানা ঝাপ্টায়-
কাতরস্বরে প্রাণভিক্ষা চায়!
আমি মুক্ত-স্বাধীন দেশের স্বাধীনতা প্রেমিক নাগরিক
বীরদর্পে এগিয়ে যাই বেয়োনেট হাতে-
এক ঝটকায় এফোঁড়-ওফোঁড় করে দেই
স্বাধীনতার শতছিন্ন বিদীর্ণ কলিজা।