বয়ে চলেছি অনামিকায়
খয়েরী থেকে কালচে হয়ে যাওয়া রক্তের ছোপ
নখের নীচ থেকে শ্বাপদের লোলুপ হাসি দেয়।
মনে করায় জ্বলে ওঠা ব্যররথতা-
তীব্রস্বরের গোঙ্গানি বেরিয়ে আসে অস্ফুট
অথচ অক্ষম আক্রোশে!
বাঁধ ভাঙে উদ্ধত জিঘাংসায়।
নখের আবরণের নীচ থেক গুড়ো গুড়ো হয়ে
অঙ্কিত হয় এক নিদারুণ প্রতিচ্ছবি
কখনও রক্তের দাগে, কখনও তৃষ্ণার্ত,
কখনও আদিম প্রত্যাশায়।
আমি সুযোগের সন্ধান করি-
হয়ত আবার আসবে, সময়;
মোক্ষম সুযোগ হারাবার।