জলধি তখন দুই বেনী বালিকা..
শীতের এক বিকেলে বারান্দায় দাড়াতেই
তার চোখ চলে যায় দুর দূরান্তরে,
যেখানে অন্তহীন আকাশ আর জলকন্যা পৃথিবী
মিলেমিশে একাকার..
সেই থেকে তার ভালোবাসা নীলচে সবুজ দিগন্তের সাথে!
রঙধনু প্রকৃতি নিয়ে তার রূপকথার দিনরাত্রি!
হঠাত্‍ একদিন অশুভ এক মানব তাকে আষ্টেপৃষ্টে
জড়িয়ে ফেলে
মানবীয় ভালবাসায়!
তারপর কোন এক কোজাগরী পূর্ণিমায় ঠিক মাঝরাতে
উধাও হয়ে যায় তার ভৌতিক প্রেম..
শুধু রয়ে যায় অদৃশ্য বিষাদের ভয়!
জলধি এখন দিগন্তে হারিয়ে যেতে ভালোবাসে,
যেখানে তার স্বপ্নের সাথে বাস্তবতা মিলে যায়..
ডাকতে না ডাকতেই সত্যিকারের মেঘ
উড়ে এসে জুড়ে বসে
তার স্বপ্নবাড়ির কার্নিশে..
মন চাইলেই দিগন্তের দোলনায় একমুঠো ঘুম!
একলা মেয়ের একার গল্পে মায়াবী মুগ্ধতা..
সময়ের নাগরদোলায় অবিরাম ঘুরতে থাকে
অশুভ অতীত, ব্যস্ত বর্তমান আর ভ্রান্ত ভবিষ্যত...!!