কষ্টে একটা জীবন মানবিক হতে পাশবিক হয়?
কেউ তার খোঁজ রাখে না
অপরাধের বিচার হয়
কারণ অপরাধ দৃশ্যমান, ব্যথাতুর, জ্বালাময়
অপরাধের নেপথ্যে যা, তা নেপথ্যেই রয়ে যায়
কত অবহেলায় কত যন্ত্রনায়
কত অপমানে কত অপবাদে কত অপ্রাপ্তিতে
কত দুঃসহ বিনিদ্র রাত্রি যাপনে
কবি আততায়ী হয়ে ওঠে!
অসাধারণ ভালবাসায় ভরা একটা হৃদয়
কতোটা বিরহে কত শত প্রবঞ্চনায়
নিমেষেই হয়ে যায় পশু!
বিষন্নতার করাল গ্রাসে নিঃশ্চুপ নির্বাক কবি
একাকিত্বে সঙ্গী হয় বিবিধ জীবননাশী দ্রব্যাদি
অতঃপর এক ভিন্ন জগত
অবচেতনে রঙিন স্বপ্নিল বর্ণিল যাই হোকনা ক্যানো
তখনকার কোনো স্মৃতি থাকে কি?
অথচ, অবচেতনার কৃত কর্মে(!) দোষী হয় সে
চরমতম নিগ্রহ ভেদ করে
শুধুই আত্মবলে ফিরে আসা একটা মানুষ
তার আত্মচ্যুতিগত বিক্ষিপ্ত বিস্মৃত সময়ের
কৃতকর্মের জন্য দন্ডিত হয়
যে বেদনাবহ স্মৃতিই বিস্মৃত তার
সে গুলো স্মরণ করিয়ে দেয় স্বজনেরা(!)
কাঁদাতে কবিকে পুনঃপুনঃ
অপরাধী বলে ধিকৃত হতে হয় প্রকাশ্যে
অথচ, ক্যানো সে বিপথে গিয়েছিল
তার কোনো সংবাদ নেই
ভালবাসা পাপ
সে পাপে দন্ডিত হতে হয়
অপবাদে, ঘৃণায়, ধিক্কারে
নিজেকে বিশুদ্ধ করে বারংবার
কড়া নেড়ে যাই ভুল দরজায়
কেউ কি থাকে সেখানে?
কারো কি ইন্দ্রিয় সাড়া দেয়?
তৃষিত কবি'র প্রতীক্ষা প্রহরে!