মা

মা (মে ২০১১)

মো আমিনুল ইসলাম
  • ১৪
  • 0
  • ৫৪২
মা তুমি কোথায় মা?
তোমার মুখখানি আজো মনের ঘরে হাতরাই
কই তোমার দ্যাখা তো পাই না
তাহলে কি তুমি নেই?
হারিয়ে গেছ আমার মন থেকেও?
ঝাপসা হয়ে গ্যাছে তোমার ছবি আঁকা সেই ক্যানভাসটা
কিন্তু এরকম তো কথা ছিল না
কথা ছিল তুমি আমার বন্ধু হবে
আমার সাথে হাসবে খেলবে আমাকে আদর করবে
ঠিক রাহুলের মায়ের মত
তুমি কই মা
তোমার জন্য কাঁদতে গেলে চোখে পানিও আসে না
আসবে কি করে, চোখের পানি যে কবেই শুকিয়ে গ্যাছে
এখন আর কান্না আসে না
তুমি কি তারা হয়েও আমার সাথে কথা বলতে পার না?
স্বপ্নেও তো আস্তে পার
আমার কোন দুষ্টুমির সাজা দিচ্ছ আমাকে মা?
জানো স্কুল থেকে ঘরে আসলে কেউ আমার ঘাম মুছে দেয় না
তোমায় একটিবার দ্যাখার জন্য কত ইচ্ছা হয়
তা তুমি বুঝবে কি করে?
তুমি তো আমাকে ছেরে ছলেই গ্যাছ.........
বাবা শোনে আর কাঁদে
তাঁরই চোখের সামনে তার ছেলের এ আবেদন
যা সে মেটাতে পারবে না
সে শুধু অস্ফুট দীর্ঘশ্বাস ছারতেই পারে
তাছারে কিই বা করার আছে তার?
বিধাতার লিখন তো আর তার হাতে নয়
ছেলে কাঁদতে কাঁদতে ঘুমিয়ে পরে
বাবাও পত্রিকাখানি ভাঁজ করে ঘুমায়
কিন্তু তার তো ঘুম আসে না
বিধাতা কি মানুষকে কাঁদাতেই জানে?
তাহলে পৃথিবীর সৃষ্টি কি কারণে?
এসব ভাবতে ভাবতে বাবাও ঘুমিয়ে পরে
আমাকেও ঘুমাতে হবে, রাত হয়েছে
এ ঘুম শেষ ঘুম হয় কিনা জানি না
সকালে কি আমি নিজের পায়ে ঘর থেকে বের হব?
নাকি কার কাঁধে করে?
কিন্তু একথা ঠিক যে আমি অবশ্যই ঘর থেকে বেরবো
কর্মব্যস্ততায় ব্যস্ত যার জীবন সে কি করে ঘরে থাকে
মৃত্যুই যে তার একমাত্র অবসর..................।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
মিজানুর রহমান রানা সাহিত্যচর্চায় এগিয়ে যান অবিরত। জয় হোক হোক আপনার। -------- রানা।
মো আমিনুল ইসলাম আপনাদের কমেন্ট এর জন্য ধন্যবাদ ইনশাল্লাহ পরের লেখাতে জত্নবান হব
শাহ্‌নাজ আক্তার মায়ের অভাব ফুটে উঠেছে ....ভালো.
sakil মা যার নাই সে জানে দুখ কাকে বলে . খুব ভালো হয়েছে .
বিন আরফান. কিছু কিছু বানান ভুল আর যতি চিন্হের ব্যবহার ছাড়া খারাপ লাগলো না. সার্বিক দিক খেয়াল করে লিখলে চমত্কার হত. কবিতা লেখায় আরো যত্নবান হোন. একদিন ভালো করতে পারবেন. শুভ কামনা রইল.
মো আমিনুল ইসলাম ধন্যবাদ এইধরনের কমেন্ট আমাকে অনুপ্রেরণা যোগাবে.
মোঃ শামছুল আরেফিন মায়ের প্রতি গভীর ভালবাসার অনুপম নিদর্শন এই কবিতাটি,অসাধারণ লাগলো। বন্ধু আমিনুল অনেক অনেক শুভ কামনা থাকল। এভাবে চালিয়ে গেলে বিজয় আসতে খুব বেশি সময় লাগবেনা।
মো আমিনুল ইসলাম শেষ খোজার তো কোনো প্রয়োজন নাই. বর্তমানেই বাচুন প্রাণ খুলে বাচুন
বিষণ্ন সুমন এক প্রচন্ড ভাবের রাজ্যে হামা দিতে গিয়ে দেখি এবড়ো-খেবড়ো মরু পথে এতটুকু সামিয়ানা ছাড়াই আমায় ক্লান্তিহীন পথ চলতে হবে. কিন্তু আমার আকাশটাকে ঢাকবার জন্য, ওই গনগনে সূর্যটাকে আড়াল করবার জন্য একটা শীতল সামিয়ানা আমার যে ভীষন প্রয়োজন. আপনার কবিতায় আমি একটা পথ পেয়েছি, কিন্তু সেই পথের শেষে কি আছে তা স্পষ্ট নয়.
মো আমিনুল ইসলাম আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ আমি এই কইদিন একটু বাস্ত ছিলাম তাই উত্তর দিতে পারি নি....

০৭ এপ্রিল - ২০১১ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • দ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "প্রত্যাশা”
কবিতার বিষয় "প্রত্যাশা”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ জুলাই,২০২২