লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩০ মার্চ ২০১৯
গল্প/কবিতা: ৩৫টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

৪৩

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftগ্রাম-বাংলা (নভেম্বর ২০১১)

শ্রীপুর আমার গ্রাম
গ্রাম-বাংলা

সংখ্যা

মোট ভোট ৪৩

অরূপ কুমার বড়ুয়া

comment ৩৪  favorite ২  import_contacts ৮৭১
গ্রীষ্মের কোনো দুপুরে
পায়ে চলা মেঠো পথ সুনসান মানুষ বিহীন
মনে হবে কোনো জনমানবহীন অলীক জগতে এসে গেছি |
কোনো গাছের ডালে ঘুঘুর ডাকে কেঁপে উঠে অন্তর
নানা পাখীর বিচিত্র ধ্বনিতে একটি মিষ্টি
আবহ সৃষ্টি করে রেখেছে মায়াময়তা |
একটু হাঁটলেই দেখা যাবে কাক চক্কু জল নিয়ে
বয়ে চলেছে নিরবধি আমাদের কর্ণফুলী-
ছোট ছোট ঢেউয়ের অনবরত জলতরঙ্গ |
একটু দুরে সমতল ভেঙ্গে হটাত জেগে উঠেছে
পাহাড়, দিগন্তের দিকে যতদুর চোখ যায়
উঁচু থেকে উঁচুতে পর্বতশ্রেণী ঘন কুয়াশায় আছন্ন
শিখর গুলু বড়ই ধ্যনশীল মনেহয় |
মাঠের সবুজের গায়ে বাতাসের ঢেউ খেলে যাওয়া
কোনো শিল্পীর আঁকা স্তির চিত্রে হটাত
প্রাণ সঞ্চারের গতিময়তায় আছন্ন হয় মনপ্রাণ |
এলাকার প্রাচীনতম কিংবদন্তি কানুর দিঘির
কালোজলে শতাব্দীপ্রাচীন বৃক্কগুলু ছায়া ফেলে
পটে আঁকা জলছবি বানায় অনায়াসে |
মুন্সির হাট জেগে উঠে বিকেলে
জমায়েত হয় হরেক মানুষ
কেনা বেচার পুরাতন খেলায় |
শান্তির বাজারের পুলের নিচে
সারি সারি বাঁশ এবং নুনের নৌকার বিচিত্র আয়োজন |
সকাল সাঝে বুড়া মসজিদের সুউচু মিনারে
ধ্বনিত হয় সুমধুর আজান নিখাদ নিয়মে -
হিন্দু পাড়ায় উলু ঘন্টা কাসরের সাথে শঙ্খধ্বনি
বৌদ্ধ মন্দিরে শোনায়ায় মঙ্গলসূত্র |
রাত নামে নিশব্দ্তার চাদর মুড়ি দিয়ে
ঝি ঝির একটানা শব্দ ভেদ করে কখনো
শিয়াল ডেকে উঠে নিসব্দতাকে পরাজিত করে |
ঘুমিয়ে পড়ে আমার গ্রাম
আমার আশৈশব বেড়ে উঠার প্রিয়ভূমি
আমার প্রতিদিনের সপ্নের চারণভূমি
চট্টগ্রামের বোয়ালখালীর শ্রীপুর |

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement