পানি! পানি!! পানি!!!
কত হাহাকার ধ্বনি শুনে এসেছি জীবনভর!
বানের মমত্বে হয়েছে কত নদ-নদী-সাগর
তবু তৃষ্ণাতুর-মিটেনি পিপাসা এক তিল!
কখনও আইলারূপে মারাত্মক: কখনওবা সিডর-
সাঙ্ঘাতিক সর্বনাশে এঁকেছে মানবজীবন!
জীবন বাঁচে না পানি বিনা: মরণ আবার পানিতে-
এক ফোঁটা পান করি না যদি, প্রাণ যায় না প্রাণাবসনে।
পানির কি প্রয়োজন মানবজীবনে!
পানি বাঁচায়- পানি মারে- পানিতে তুলাদণ্ড সাঁতারে-
এই বিশ্ব পানিতে ভাসে: কেয়ামত এই পানির কাছে ঋণী।
ঔষধ সেবনে জল চাই, শৌচাগারে জল চাই, রন্ধনে জল চাই,
স্নানে জল চাই, কাননে জল চাই, বাগানে জল চাই,
জল চাই--জলচাই--সমস্ত কাজকর্মে জল চাই-
জল চাই--
তবু আমি ঋণী নই!
বিধাতাকে উৎকৃষ্ট সৃষ্টিতে হয়েছি বিমুখ- পাই না খুঁজি সুধা প্রীতি
আমি বড় নির্বোধ-কুপথ করি অবলম্বন-চিনি না সুপথ!
বল তবে, আমার পরে কেন হবে বিধাতা সদয়?