বৃষ্টি আমার ভালোবাসার জিনিস। বৃষ্টি এলে লিখে ফেলি কত শত অকবিতা। এটিও বৃষ্টিমূখর দিনে লেখা কবিতা অথবা অকবিতা। চরণে চরণে বৃষ্টি আসে তাই বৃষ্টির সাথে নিশ্চয়ই সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়েছে!
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৭ আগস্ট ১৯৭৭
গল্প/কবিতা: ১০৭টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৩৪

বিচারক স্কোরঃ ২.৫৪ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৮ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - বৃষ্টি ভেজা...... (জুলাই ২০১৯)

বৃষ্টির কবিতা.......
বৃষ্টি ভেজা......

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৩৪

এই মেঘ এই রোদ্দুর

comment ১৩  favorite ০  import_contacts ৫৮১
১।

ঝমঝমিয়ে হঠাৎ করে, নামলো সুখের বৃষ্টি,
বৃষ্টি ভেজা এমন রাতি, আহা লাগে মিষ্টি।
ঝড়ের বেগে গাছগুলো ঐ, রাখলো মাথা নুয়ে
ইচ্ছে লাগে বৃষ্টির ফোঁটা, দেখি একটু ছুঁয়ে!

হুড়মুড়িয়ে বইছে তুফান, সাথে ঝড়ো হাওয়া,
বৃষ্টির ছাটে গেলো ভিজে, দখিনমুখি দাওয়া!
বিজলি চমকায়, আকাশ ধমকায়, ভয় লাগে খুব বুকে
নৃত্য করছে পাতারা সব, অল্প ঝুঁকে ঝুঁকে।

ভেজা রাতের আকাশ জুড়ে, ঝলমলানো আলো,
বৃষ্টি ভেজা প্রহর আমার, লাগে বড় ভালো!
ও বৃষ্টিরে যাস না থেমে, রাত্রি ভরে ঝরিস
চোখের পাতায় আরাম দিনের, স্বপ্ন ঘুমও গড়িস।

২/
চুপচাপ ঝুপঝাপ বৃষ্টিরা তুলছে তুমুল নৃত্য,
আলগোছে জানালা ফাঁক করলেই ধুধু হাওয়া,
উড়িয়ে নিয়ে যায় চুল, এক সমুদ্দুর প্রশান্তি বুকে নেয় ঠাঁই,
ঝরুক বৃষ্টি আজ অঝোরে, ডুবে যাক মন শহর,
দীর্ঘশ্বাসের ঢেউগুলো ডুবিয়ে দেবো বৃষ্টির জলে।

আচ্ছা.…..জানতে চাচ্ছিলাম
তোমার শহরেও কী আজ অঝোর বর্ষা?
বৃষ্টি রুমুঝুমু শব্দের তালে তোমারও কী মন
দুলে উঠে সুখ শিহরণে?
ভালো লাগায় অস্থির মন তোমার,
চাইছো কী বারান্দায় দাঁড়িয়ে বৃষ্টি ছুঁয়ে দিতে?
না কী ঘুমিয়ে আছো আরামে কাঁথা মুড়িয়ে?
বৃষ্টির শব্দ কী কানে পৌঁছোয়নি তোমার?
হাওয়ার ঝাপটায় তালে তালে পাতাদের নাচন,
এসব দেখে তোমারও কী ছন্দ লিখতে ইচ্ছে হয় না?
ঠিক আমার মত!
দুচোখে বৃষ্টি ঝরিয়ে কাছে থেকেও দূরের তুমি!

আমাকে শিরোনামে রেখে তোমার কী
ইচ্ছে করে না এক দীর্ঘ কবিতা লিখতে?
অথচ দেখো বৃষ্টি এলেই আমি কবিতার খাতা খুলে বসি,
শব্দে শব্দে তুমিময় বাক্য,
চরণে চরণে ঝরে পরে কখনো দীর্ঘশ্বাস
কখনো বিরহ, কখনো বিষাদ, কখনো বা বিষণ্ণতা
অথবা সুখ সুর অনুরণন!
পাতার পর পাতা লিখে ফেলি যতক্ষণ না বৃষ্টি থেমে যায়,
আর তুমি স্বপ্নঘুমে কাতর, ভাবোই না আর আমাকে!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement