বিহঙ্গের ডানা থেকে খসে পড়ে তারা,
আমি নই নক্ষত্র আকাশ তবু দিক হারা।
মোহিত কত সব জল-মৃদঙ্গ পেলবতা ভরা,
বিমূর্ত প্রেম তবুও আকুল; বর্ষায় অমিয় ধারা।

নয়নের বারিধি অবিরাম; তুমি তার দৃষ্টি,
তোমার নিলয় সাজানো মেঘে অবয়ব কৃষ্টি।
এ চরণ তো এগোয় না সামনে সীমাহীন পথ,
ডানে-বাঁয়ে প্রলয়রত চলমান প্রেম-রথ।

কতকাল চেয়ে রবো দোর-কপাট খুলে,
হাঁকা ঝুমুর, আষাঢ়ের নৃত্য বর্ষা জোয়ে।
সকল খেলা শেষে ছিল বুঝি অপেক্ষা,
আজীবন প্রেম দিতে নিয়েছি তার দীক্ষা।

শেষ প্রহর তবুও ভাবি অলক ছুঁয়ে নির্ঘুম,
প্রভাত কানন ব্যাকুলতায় নিরাদর কুশুম।
তুমিও কি সাধো হেম বেহাগে বর্ষার ঝুমে!
দু’হাত ধরা তবু স্পর্শহীন বিবাগী সোহাগে।