আমি তো খাঁচার পাখি ,,
নীল আকাশ চেয়ে থাকি !
সখিদের কবে পাবো দেখা ?
আমার বাড়ির আঙিনায় -
হরেক পাখির মেলা ।
ইচ্ছা জাগে তাদের ভিড়ে-
আমি মিশে যাই ।
পায়ে আমার লোহার বেঁধি ,
দেখার কেউ নাই ।
স্বপ্ন দেখি সখির সাথে নীল আকাশে উড়ি ,
স্বপ্ন ভাঙ্গলে খাঁচার ভিতর মাথায় খুড়ে মরি ।
অশ্রু আমার শিশির কণা-
সূর্য মামা শুকায় ।
স্বপ্ন আমার পরজীবি -
কারো সমাদর নাই ।
পালক গুলো ভীষণ কালো-
বাসা খানা ভঙ্গুর ।
আমার ঘরে আসেনা কেউ -
সকাল ,সন্ধা - দুপুর ।
নেয় না খবর দেয় না কেউ উৎকিষ্ট খাবার ।
অবহেলা অপমানে চার দিকে আধাঁর ।
নির্জনে বসে চুপ মেরে কাঁদি ।
খাঁচার ঐ শিক গুলো আমার যে সাক্ষী ।
মুক্ত বনে সখির সাথে করছি নানান খেলা -
সকাল ঘনিয়ে দুপুর পেরিয়ে ডুবে যেত বেলা ।
এখন তাদের দেখিনা কাউরে -
আমি যে একেলা ।
চোখের সামনে পাখির ঝাঁক -
আকাশ মাতায় বেলা ।
অশ্রু আমার ঝর্ণা ধারা -
হ্নদয় ছটফট করে ।
আমি খাচায় বন্ধী পাখি-
কেন ভূলে যাই ।
স্বপ্ন আমার পরজীবি -
কারো সমাদর নাই ।