রাস্তাঘাটে ছড়িয়ে আছে কেবলই বেহায়াপনা,
বিরামহীন ভাবে কিশোর ঝরাচ্ছে সাদা তরলের ঝর্ণা!
মানবসমাজ গ্রাস করেছে যেন আজ অশ্লীলতা,
হোটেল, পার্ক সব ছেয়েছে অবাদ যৌনতা!
কিশোরী দিচ্ছে বিনামূল্যে সর্বস্ব বিলিয়ে,
পুরুষের সব প্রশান্তি যেন কেবল ঘরের বাতি নিভিয়ে!
উলঙ্গ গার্লফ্রেন্ডের অঙ্গ জোড়ায় বয়ফ্রেন্ডের হাতছানি।
নরপশু লালা ঝরাচ্ছে, সইতে না পেরে হরমোনের হল্কানি!
জনি সিন্সই যেন আছে ইন্টারনেট জুড়ি,
কিশোরের মোবাইল ঘাটি দেখ,পর্নোগ্রাফির ছড়াছড়ি!
তীব্র যন্ত্রণায় হিমসিম খাচ্ছে কিশোরীর আঁধার গর্ত,
আপন মোহে আঁকড়ি, গোটা সমাজ করেছে উত্তপ্ত।
কতো আশা যাচ্ছে রসাতলে।
কতো স্বপ্ন পিষ্ট হচ্ছে পদতলে।
কে করবে সব নিয়ন্ত্রণ,
সবাইকে আটকে রেখেছে যে গোপন যন্ত্রণার বাঁধন!
দেহতেই যেন মিশে আছে জীবনের অর্থ,
ভয় হয় ভাই, এই বুঝি হাজির হয় ধ্বংসের মূহুর্ত!