স্বপ্ন দেখি যতবার আমি চোখ বুজে
পাইনা তোমার খোঁজ,
তবুও আমি আশা করি কিছু না বুঝে
সকাল-সন্ধ্যা রোজ।

কিভাবে শুরু হল স্বপ্ন
জানিনা আমি কখন,
অদৃশ্য খেলায় জড়িয়ে পড়ে
হারিয়ে ছিলাম এই মন।
তখন থেকে তোমার ছবি
তোমার স্মৃতি রোমন্থন,
কেনই বা তবে ভুলে যাব
এত ভালোবেসেছি যখন।

স্বপ্নের জাল বুনতে পারি
পথের পরে পথের বাঁকে,
হৃদয় বলে প্রিয়তমা যে
খুঁজে কি পাবো তাকে?
আমি বলি, ও মন আমার
আর কত তোর পালাবার
মন হারিয়ে কি শান্তি মেলে?
মনের মানুষ কাছে না পেলে!

তাইতো আমি দুঃখ ভুলে,
ফিরে আসি স্বপ্নের কূলে।
দীঘল কালো তোমার চুলে
হারিয়ে যাই একটু ছুঁলে,
যেন শ্বেত পুষ্পের সুরভি
না বলা কবিতার ছবি।
তার গন্ধ চাই নিরবধি
তুমি আমার হতে যদি!

তাইতো বলি আপন মনে
স্বপ্ন আমার চিরদিন,
তুমি পাশে না থাকলেও
স্বপ্ন তো হয়না অমলিন।
স্বপ্ন আমি নিজে গড়ি
কল্পনার মিশেল দিয়ে,
যদি কখনো চায় মনে
দেখো আমার থেকে নিয়ে।

স্বপ্ন যত মনের মাঝে
স্বপ্ন মেশে সকল কাজে,
আমার ঘুম, আমার জাগা
স্বপ্নের মাদলে বাজে।
স্বপ্নের হিসাব করে দেখি
স্বপ্ন কত হরেক রকম
স্বপ্ন হাসে, স্বপ্ন কাঁদে
স্বপ্ন বেশি স্বপ্ন কম!

হয়তো আমি স্বপ্নের গর্ভে
হারিয়ে যাব, হবো বিলীন
তুমি তত কাছে আসবে
স্বপ্ন যত হবে গহীন।
বাস্তবে মিল নাই বা হল
স্বপ্নে তোমার ভালোবাসা
আমার নতুন স্বপ্ন বুনবে
বেঁচে থাকার মগ্ন ভাষা।

প্রখর রোদের যে স্বপ্ন
তার পরেও থাকে বৃষ্টি,
আমার পোড়া চোখে যদি
নামে তোমার প্রেম দৃষ্টি।
পাখিরা কেমন আকাশে ওড়ে
যেন স্বপ্নে ভাসছি দুজনে
এমন অভিলাষ ব্যক্ত করি
ফিরে আসুক জীবনে।

জানিনা কি সব ভাবছি আমি
তোমার বিরহে অগোছালো,
আগামীর নৌকা থেমে আছে
ছিড়ে গেছে পালও।
তুমি এসে যদি ধরতে হাল
হতে আমার পাঞ্জেরি,
ঠিকিই যেতাম লক্ষ্যে আমি
পথে হতোনা দেরি।

শেষবার আকুতি তোমার মনে
রাখছি আমি নিবেদন,
স্বপ্ন আমার যেন না ভাঙে
তুমি মিশে থাকো অনুক্ষণ।
স্বপ্নে হউক যত ভালোবাসা
তোমার আমার কাব্য,
আমার স্বপ্ন সফল হবে
বিশ্বাসে তাই ভাববো।

স্বপ্ন রাখি আমি মনের গভীরে
তোমার স্পর্শ মাখা,
আমার অতীত থেকে ভবিষ্যৎ
অব্যক্ত স্বপ্নে ঢাকা।