শিশিরফোটা আমার শরীর স্পর্শ করে জলন্ত উল্কার মত।
এক পরিত্যক্ত চাটিতে মুড়িয়ে নিই নিজেকে...
কখনও কখনও স্বাধীন কুকুর আমার গা ঘেঁষে শুয়ে পড়ে।
এই দিনে বাঘও ভীতু হয়, আমি ভয় পাইনা।
অনিশ্চিত জীবনের ভয় নাকি পেতে নেই,
আবার ভয় কাটানোর অভ্যাসও কম নেই।
ফুটপাতে মাঝে মাঝে সরকারি হুইসেল বেজে উঠে..
প্রাণ যায় না, তবে ঘুমও হয় না।
ঘুম হয় না পথচারীর ফেলে যাওয়া ধুলোবালির গন্ধে।
ক্ষুধার্ত রক্তচোষা পোকাদের সাথে দ্বন্দ্বে।
প্রাণ যায় বেমালুম মাতাল মাউথের বন্যহাতির পায়ে।
হাড়কাঁপানো গোঙানিতে আমার গানের সুর হয়।
আমি অপেক্ষিত, ভোরের অগ্নিপিণ্ডের আলো-
মাখাবো বলে গায়ে।
যার আলোতে পালিয়ে যাবে কুয়াশার দল।
ভোরের উষ্ণতা মেখে খানেক কাক ঘুম হবে,
তারপর তো ক্ষুধার সংগ্রাম চলবে অবিরল।