কৈশোরী জীবন খুবই দূরন্ত চঞ্চল, মানে না কোনা বাঁধা। জীবনকে বিলিয়ে দিতে চায় সকলের মাঝে, চির অমর হয়ে থাকেতে চায় মানুসের মাঝে।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৫ জানুয়ারী ১৯৯৪
গল্প/কবিতা: ২টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কৈশোর (সেপ্টেম্বর ২০১৯)

দূরন্ত কিশোর
কৈশোর

সংখ্যা

হারুন-অর-রশিদ

comment ১  favorite ০  import_contacts ৩৫
আমি কিশোর, আমি দূরন্ত চঞ্চল।
হুঙ্কার দিয়ে জানিয়ে দিব,
দেখিনা বাঁধা, রাখিনা কোন আধাঁর।
আমি দূরন্ত কিশোর।

কিশোর বয়স হয় এমন
দেয় মাথা নাড়া, হুক্কার, গর্জন,
কাপিয়ে মাটি করিবে আঘাত, আনিবে প্রভাত।
মুক্ত করে দিবে আলোর দিশারী।

কৈশোরী জীবন হয় এমন
মানে না কারও বাঁধা, শোনে না কারও কথা
চলে সে দূর্বার গতিতে-
ছিনিয়ে আনিবেই বিজয় এই তার প্রত্যয়।

বিজয়েরে নেশায় কাঁধে কাধ মিলিয়ে,
হাতে হাত রেখে, জীবনকে ধরেছি বাজি।
আমি কিশোর, দূরন্ত চঞ্চল
মুক্ত করিব সবার জীবন।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • নাজমুল হুসাইন
    নাজমুল হুসাইন ভালো লিখতে চেষ্টা করেছেন তবে নেক্সটে খেয়াল রাখতে হবে যাতে করে শব্দের অর্থ কোন ক্রমে বিকৃত হয়ে না যায়,যেমন হুঙ্কার যেন হুক্কার,অথবা সাধু চলিত মিশ্রিত হয়ে দোষের সৃষ্টি না করে।সমালোচনার জন্য দুঃখিত,কিন্তু মিছেমিছি কবিতার মানকে খুব ভালো বলে আপনার লেখার হাতকে...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৮ সেপ্টেম্বর

advertisement