হঠাৎ আঁধারে ঢেকে গেলো সব –
রাজপথে হুক্কা হুয়া রব, হুক্কা হুয়া রব !

ভয়াল আধার, বৈষম্যের আঁধার, নির্যাতনের আঁধার, আঁধার আর অত্যাচার –
পাকিস্তানী আঁধার! ক্ষয়িষ্ণু চাঁদ-তারার আঁধার !


অস্ত্রের ঝংকারে-
স্বাধীনতাকামী বাঙালির উপর চাপিয়ে দেয়া নির্মম আঁধার !
পরিকল্পিত ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর আধার-
নিরস্ত্র বাঙালি হত্যায় মেতে উলঙ্গ নৃত্য করার আঁধার !


ভন্ডের রঙ্গমঞ্চে-
ইয়াহিয়া খানের আলোচনা – অভিনয়-অন্ধকার রূপায়ন,
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আলো নেভানোর ষড়যন্ত্র –
শিক্ষক-ছাত্রদের কাপুরুষের মত হত্যার অন্ধকার মঞ্চায়ণ !


প্রতিবাদী নেতাদের গ্রেফতার করার আঁধার -
আলোরপথের যাত্রীদের কন্ঠস্বর দমানোর উৎপাত!
সমগ্র দেশ গ্রাস করার আঁধার-
২৫ মার্চ রাত, গণহত্যার রাত!


আঁধার নিয়ে কবিতা হয়না - ঘৃণা জন্মায়!
মোহনীয় ছন্দরা, সুন্দর শব্দরা লুকিয়ে যায়!!


বীর বাঙালি সে “চাঁদ-তারার” আঁধার তাড়িয়ে-
“সবুজের বুকে লাল সূর্য” এনেছে হানাদারদের যুদ্ধে হারিয়ে ।
এখন আমরা লিখি স্বাধীনতা-বিজয়ের আলোর কবিতা–
ঝাটিয়ে বিদায় করে আঁধার - যত ছিলো, যত আছে- দুর হোক সবই তা ।