শূণ্য চারিধার

বন্ধুত্ব সংখ্যা

এ কে সরকার শাওন
  • 0
  • 0
  • ১০৮
প্রজাপতির ডানায় আর
বর্ণালী রং দেখি না,
ফুলের বনেও পাই না ঘ্রাণ;
সাতরঙা রংধনুও বিবর্ণ প্রায়
জ্যোছনাস্নাত রাতও ম্রিয়মান!

বৃষ্টির সুর আনন্দ নূপুর
অনুভুত হয় না বিরস মনে,
ভাটিয়ালি গানে পাখির তানে
ভাঙ্গা মন হয় না কভু চনমনে;
সবকিছুই ফাঁকা ফাঁকা লাগে
সেই পরদেশী বিনে!

শ্রান্ত সকাল বিবর্ণ বিকাল
স্তব্ধ দুপুর সন্ধা রাত!
নিত্য শুনি তাঁর পদধ্বনি
প্রতীক্ষার প্রহর মিছে নির্ঘাত!

স্বপ্নহীন সঙ্গীবিহীন
চিরশূণ্যে মহা বিলীন!
জনম জনমে শোধ হবে না
সেই শূণ্যকারীর ঋণ!

নীলাকাশে সে দূরে বহুদূরে
নাগালের সাধ্য কার?
নক্ষত্র কি কভু শুনে
বিরহিণীর মর্মভেদী চিৎকার!
তাঁর শূণ্য চারিধার!

চিরচেনা চপলা হারিণী
আজ পাষাণ নিস্প্রান!
বেদনা বিধুর তাঁর পৃথিবী
একাকীত্ব শূণ্যতা শুনশান!
অন্তরে অগ্নিকুণ্ড জ্বাজ্জল্যমান!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
ফয়জুল মহী অনুপম ভাবনার মন ছোঁয়া উপস্থাপন মুগ্ধতায় ছুঁয়ে গেল মন।

লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

প্রিয়া বিনে বিরহিণীর জীবন ধূসর মরুভুমির মতন। শুন্য নীলাকাশের মতই ফাঁকা ফাঁকা। শূন্যতা তাঁকে অক্টোপাসের মত ঘিরে রাখে। দুঃখের সাগরে জীবন বিলীন হয়ে যায় সব সাধ। সব রঙ মুছে গিয়ে জীবনটা সাদা কিংবা ফ্যাঁকাসে হয়ে যায়। ভাললাগার সব অনুভূতিগুলো শূন্যে হারিয়ে যায়। এই প্রেক্ষাপটে লিখিত "শূণ্য চারিধার" কবিতাটি বিষয়ের (শূণ্যতা) সাথে সমঞ্জস্যপূর্ণ ও প্রাসঙ্গিক।

১২ আগষ্ট - ২০১৮ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "ডিজিটাল ভালবাসা”
কবিতার বিষয় "ডিজিটাল ভালবাসা”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ অক্টোবর,২০২১