উত্তরের হাওয়ায় শরীরে কাপন লাগিয়ে,
যখন শীত আসে।
প্রকৃতিতে চলে ভিন্ন রুপে সাজার প্রস্তুতি।

বেলা বাড়ার সাথে সাথে সূর্য উঁকি দিলে,
রোদ পোহানোর ব্যস্ততা চলে।
পাটালি আর মুড়ি খাওয়ার ধুম পড়ে,
গ্রামের এপাশে ওপাশে।

এ সময় গৃহিণীদের চলে,
পিঠা বানানোর প্রস্তুতি।
বাহারি রকমের পিঠার ছাঁচে,
তৈরি করে পিঠা পুলি।

নানান রকম আয়োজন চলে,পুরো শীত জুরে।
প্রজাপতির আনাগোনা লেগে থাকে সরষে খেতে।
যতদুর চোখ যায় মনে হয়,
মুড়িয়ে রেখেছে গ্রামের চারপাশ
কেউ হলুদ রঙের চাদরে।
এসময় হেটে যেতে মন চায়,
গ্রামের মেঠো পথ ধরে, দুর থেকে দুরে।

আরাম আয়েশিদের কাছে, প্রিয় ঋতু শীত হলেও।
গরীবদের জন্য শীত দুঃখের কারন।
গরম পোশাকের অভাবে,
কারো চলে সংগ্রামী জিবন।

অল্প সময়ের জন্য হলেও,
ভিন্নরুপ নিয়ে শীত আসে।
স্নেহের পরশ বুলিয়ে দিয়ে,
মায়া রেখে যায় কোমল স্পর্শে।
পাতা ঝরার মলিনতা ভুলে,
প্রকৃতি সাজে আপন রুপে।