কৈশোরের স্মৃতিগুলো অনেক দুরন্তপনায় ঘেরা থাকে, মনে পড়তেই আবারও ফিরে যেতে ইচ্ছে করে কৈশোরে।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১১ জুন ১৯৯৪
গল্প/কবিতা: ১১টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৫৮

বিচারক স্কোরঃ ৩.৩৮ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.২ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কৈশোর (সেপ্টেম্বর ২০১৯)

রঙিন দিনগুলো
কৈশোর

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৫৮

আইরিন

comment ১৬  favorite ১  import_contacts ৩৯২
দুরন্তপনায় ঘেরা কৈশোরের কথা মনে পড়লেই,
আরও একবার ছেলেবেলায় ফিরে যেতে ইচ্ছে করে।

ইচ্ছে করে, রোজ দুপুরে বেরিয়ে পড়ি,
লাল ফড়িংয়ের পিছে।
বিলে নেমে শাপলা তুলি,
মায়ের শাষন ভুলে।

ইচ্ছে করে, পেট খারাপের বায়না ধরি,
স্কুল ফাঁকি দিতে।
রুপকথার সব গল্প শুনি,
ঠাকুমার মুখে।

ইচ্ছে করে, ঘুরে বেড়াই বন বাদাড়ে,
সোহেলীদের সাথে।
বকুল ফুলের মালা গেঁথে,
সাজি মিথ্যে বিয়ের কনে।

ইচ্ছে করে, লাটাই হাতে,
বেড়িয়ে পড়ি অবেলায়।
রঙ বেরঙের ঘুড়ির মাঝে,
স্বপ্ন বুনি উড়তে চাওয়ার।

ইচ্ছে করে, জ্বরের ঘোরে,
প্রলাপ বকি খেলতে যাওয়ার।
ঔষধ খাওয়ার ভয়ে কখনও,
লুকিয়ে থাকি খাটের তলায়।

ইচ্ছে করে, বৃষ্টি এলেই,
দৌড়ে যাই ছাঁদে,
মায়ের কাছে বায়না ধরি,
ভিজতে চাওয়ার অনুরোধে।

ইচ্ছে করে, ফিরে যাই,
আর একবার কৈশোরে।
ফিরে যাই জীবনের সেই,
রঙিন স্মৃতির মুখপানে।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement