মিলনের সার্থকতা আপেক্ষিক তবে নিঃসন্দেহে আনন্দময়। অনেক মিলন আকাঙ্ক্ষার ভেতরেই ঘুরপাক খায়। দীর্ঘ অপেক্ষার পরও কিছু মিলন বাস্তবতা পায়। আবার কিছু মিলনাকাঙ্ক্ষা দীর্ঘশ্বাস হয়েই রয়ে যায়। রূপকাশ্রিত আমার কবিতায় মিলনের তৃষ্ণা এবং আশা ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
গল্প/কবিতা: ৪৩টি

সমন্বিত স্কোর

১.৩৫

বিচারক স্কোরঃ ০.৩৫ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - মিলন (আগস্ট ২০১৯)

টাঙ্গুয়ার হাওরে রাঙ্গামুড়ি
মিলন

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ১.৩৫

জামাল উদ্দিন আহমদ

comment ৫  favorite ০  import_contacts ১০৮
কে নেবে চল দূরে নিয়ে আমায়– বল কোথায়
সেই চলে যাওয়া সে, রাঙ্গামুড়ি আজনবি?
নেমেছিল ছড়ায়ে রঙ টাঙ্গুয়ার জলে গেলবার
দোল খেতে খেতে মৃদু হিল্লোলে অলিন্দ স্রোতে।

সে পাঠায়ে লিপি তরঙ্গের রঙ-তুলি রেখায়
করেছে কেলী একেলা দূর হিজল ছায়ায়।
ভরাজল চৌদিকে, কেউ ছিল কি পাশে তার?
ছিল এমনই ভাবনা আগে, এখনও তেমনই।

সেকি তবে শুধু একবারই নামা এই ভূমে
একবারই জলে জ্বেলেছ আগুন পুড়ায়ে পালক?
হলনা জানা ঠিকানা তোমার – শৈত্য নিবাস
কেন তবে রঙ মাখালে মিছে, মৌতাতে খেয়ালে?

জেগে রয় রাত ভরসায় পুরে প্রভাত প্রোজ্জ্বল
দোলে পয়ার ছন্দে আকুতি অপার আগামীকালের।
মুকুটে মেখে রোদ উত্তুরে হাওয়ায় মেলবে ডানা
জানি হবে দেখা, হিজল বাড়িতে, সেই টাঙ্গুয়ায়।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement