লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৪ এপ্রিল ১৯৯৮
গল্প/কবিতা: ২টি

সমন্বিত স্কোর

২.৪৩

বিচারক স্কোরঃ ১.২৮ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.১৫ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftগল্প - অন্ধ (মার্চ ২০১৮)

পরশ
অন্ধ

সংখ্যা

মোট ভোট ২১ প্রাপ্ত পয়েন্ট ২.৪৩

Mahbubur Rahman Heru

comment ৭  favorite ০  import_contacts ২৭৬
হাত কাঁপছে। মনে হচ্ছে মনের ভিতর কি যেন ভয় ঢুকে গেল। মাথায়ও কিছু আসছে না কি লিখব। আজকাল সিগারেট খাওয়াটাও ছেড়ে দিয়েছি। আর সিগারেট ছাড়া লেখা তো দূরের কথা মাথায় কিছু চিন্তাও করতে পারব না। না, মনে হচ্ছে আমাকে দ্বারা আর কোনো লেখা হবে না। কি এমন অস্বস্তিতে ভুগছি!কিছু একটা করা দরকার। আচ্ছা, একটা ঘুম দেই তাহলে।

ঘুম, ঘুম, ঘুম!! কিন্তু ঘুমের তো কোনো দেখা নেই। দুই ঘণ্টা পার হয়ে গেল কিন্তু ঘুমের কোনো চিহ্নও নেই। আচ্ছা, এককাপ চা খেয়ে নিই। দেখা যাক, কি হয়।

না, আর পারব না। আজকে ধরাতেই হবে।
উঠলাম।
দোকানে গেলাম।
এক প্যাকেট বেনসন কিনলাম।
বাসায় চলে আসলাম।
মনে খুব আনন্দ।
টেবিলের সামনে চেয়ারে বসলাম।
একটা সিগারেট বের করলাম।
মুখে নিলাম।
ধরালাম।
আহা! কি শান্তি।
চোখ বন্ধ করে দুই তিনটা টান দিলাম।
চোখ খুললাম।
একি!
টেবিলের ওপর এক রহস্যমানবী বসে আছে। দেখতে ভালই সুন্দর। কপালে একটি টিপ আছে। লালটিপ। পরনে লাল শাড়ি। খোঁপা বেঁধেছে চুলে। চুলগুলো বেশ বড় মনে হচ্ছে। মনে হচ্ছে হাঁটু পর্যন্ত। টানা টানা বড় বড় চোখগুলোতে কাজল মেখেছে। ঠোঁটগুলো পুরো মাখনের মত। ইচ্ছে করছে একজন চিএশিল্পী হয়ে তার ছবি আঁকি। পায়ে আলতা মেখেছে। হাতে সাদা -লাল চুড়ির মিশ্রণ। মাথা নষ্ট পুরাই। যে রকম চাই পুরো সেইরকম। অনেকক্ষণ তার দিকে তাকিয়ে আছি। শুধু পাগল হবার উপক্রম।
- কেমন আছেন? ( রহস্যমানবী )
- জি.....
- জীবিত আছেন?
- জি, আছি।
- দেখুন, আমি বুঝতে পেরেছি আপনি অনেক দুশ্চিন্তা আর দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছেন। তো আপনাকে একটু রিলাক্স ফিল করানোর জন্য আমার আগমন।
- আগমন? আপনি কোথায় থাকেন?
- আমি, সবার মাঝেই থাকি।
- সবার মাঝে?? বুঝলাম না ব্যাপারটা!!
- আসলে, সকল ব্যাচেলর পুরুষের মাঝে।
- কেন ব্যাচেলর পুরুষের মাঝে?
- আপনার কি বুদ্ধি নেই? একটু নিজে ভাবতে পারেন না!
- না, পারব না।
- তাহলে, শুনুন। একটি ব্যাচেলর পুরুষের মাঝে একটি দুনিয়া বা জগৎ থাকে।
মানে হচ্ছে তার মনে, শয়নে, স্বপনে সে একটি জগৎ তৈরি করে। ঐ দুনিয়াটাকে সে নিজের মত করে সাজায়। এমনকি সে নিজের মত করে তার একজন জীবনসাথী বানিয়ে ফেলে না হয় কল্পনা করে। বলতে পারেন আমি আপনার ঐ দুনিয়া বা জগতের একজন নারী।

- কিন্তু আপনি ঐ জগৎ থেকে এই জগতে কিভাবে এলেন??
- আপনার মনে হচ্ছে আমি এই জগৎ আছি কিন্তু আসলে আমি এই জগতে আসিনি।
- কি বলছেন এসব? আপনি আমার সামনে বসে আছেন, আপনি বসে আছেন আর আপনি বলছেন আপনি নেই!!
- জি, সত্যি। এটা আপনার মনের ভুল। আপনার ব্রেইন আপনাকে দেখাচ্ছে আপনি এখানে আছি কিন্তু আমি ঐ জগতে বসেই আপনার সাথে কথা বলছি।
- আমি এতসব বুঝি না। শুধু জানতে চাই আপনি কেন এখানে এসেছেন?
- আপনি অনেক দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছেন কি লিখবেন না লিখবেন। তাই আপনাকে সাহায্য করতে এলাম।
- আপনার সাহায্যের কোনো দরকার নেই আমার। আপনি এখন আসতে পারেন।
- না, আমি যাব না। আপনি আমাকে দেখে আমার মত এইরকম একটি ক্যারেকটার তৈরি করুন আপনার লেখাতে।
- আচ্ছা দেখি, আপনি এখন যান তো।
- হুম.... আমি চলে যাচ্ছি তাহলে।( প্রস্থানের প্রস্তুতি )
- যান। আচ্ছা, শুনুন তো?
- জি, বলুন।
- আপনার নামটা কি জানতে পারি?
- আপনিই একটা নাম দিয়ে দিন আমার।
- সত্যি বলছেন? রাগবেন করবেন না তো আবার!
- কেন করব? আপনার সাথে রাগ করা যায়?
- তাই বুঝি?
- হ্যাঁ। আমি গেলাম।
যেই না রমণী যেতে লাগল, আমি তার হাত ধরে ফেললাম। সে দাঁড়িয়ে গেল। আমার দিকে চেয়ে আছে। আমিও তার দিকে চেয়ে আছি। তার মনে একধরনের শিহরণ জেগে উঠেছে। সে যে আমার পত্নী। যাকে দেখে আমি ১২ বছর আগে প্রেমে পড়েছিলাম। এবং ১২ বছর ধরে ভালবেসেছি। ১২ বছর তাকে নিজের আরেকটি জগতে নিজের মত করে নতুন আঙ্গিকে সাজিয়েছি। ১২ বছর শয়নে, স্বপনে শুধুমাত্র তাকেই চেয়েছি। ১২ বছর ধরে তার অপেক্ষা করেছি। সবেমাত্র দুই মাস হল তাকে বরন করে নিয়েছি। আমি জানি সে আমাকে বুঝবে এবং আমার অনুভূতির দাম দিবে। তাই আজকে আমি যেভাবে হোক লিখব এবং তাই তাকে আমি এতটা ভালবাসি........

advertisement

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • সাদিক ইসলাম
    সাদিক ইসলাম গল্পটা এবারের বিষয়ের সাথে প্রাসঙ্গিক মনে হলোনা। তবে বর্ণনা ভালো লাগলো। শুভ কামনা
  • Sanchita Saha
    Sanchita Saha ছোট হলেও সুন্দর
  • মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া
    মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া ডিসেম্বর সংখ্যায় প্রশ্ন-এর চেয়ে এবারের গল্পটি বেশ ভালো হয়েছে। কিন্তু আপনাকে আরেকটু সময় দিতে হবে। কোন লাইন লেখার পর নিজে নিজেই বেশ কয়েকবার পড়তে হবে। পারলে বন্ধুদের কাউকে দিয়ে পড়িয়ে ভুলগুলো সংশোধন করে নেবেন-তাহলে আরো ভালো হবে লেখা। আর হ্যাঁ, এখানে বা ওখানে ...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ৬ মার্চ
  • মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী
    মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী সুন্দর কাহিনী তুলে এনেছেন, ভালো লেগেছে। শুভকামনা নিরন্তর
    প্রত্যুত্তর . ১৪ মার্চ
  • মৌরি হক দোলা
    মৌরি হক দোলা গল্পটি যদি ‘রমণী’ সংখ্যায় জমা দিতেন, তবে একেবারে বিষয়ের সাথে মিলে যেত। ‘অন্ধ’ সংখ্যার সাথে কোনো মিল খুঁজে না পেলেও গল্পটি বেশ সুন্দর। আশা করছি ভবিষ্যতে বিষয়ের সাথে সম্পৃক্ততা রেখেই সুন্দর সুন্দর গল্প উপহার দিবেন। আমরা পাঠকগোষ্ঠী সেই সুন্দর গল্পের প্রতীক্ষ...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ২০ মার্চ
  • Farhana Shormin
    Farhana Shormin গল্পটি বিষয় ভিত্তিক মনে হয়নি; তবুও ভোট রইল।
    প্রত্যুত্তর . ২৫ মার্চ
  • ওয়াহিদ  মামুন লাভলু
    ওয়াহিদ মামুন লাভলু যার প্রেমে পড়া যায়, যার প্রতি দীর্ঘ সময়ের ভালবাসা আছে সে ভালোবাসার মানুষটিকে বুঝবে এবং অনুভুতির দামও দিবে বলেই আশা করা যায়। অনেক ভাল লাগল। আমার শ্রদ্ধা গ্রহণ করবেন। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইলো।
    প্রত্যুত্তর . ২৮ মার্চ

advertisement