রাজ্য তোমারে উপহাস করে, নৃ’জাতি অবহেলায়,
শাসন শোষণ কোথায় চলিত,জাতি না চাহিলে ঠায় ।
ক্ষমতা তোমারে মুকুটে দিয়েছে, তুল্য ভাবিয়া ভ্রাতা
ভূখের রাত্রি কেমনে পোহায়,জানিতে দুঃখ কথা।
অসহায় কে রোদ্রে পুড়িছে, পুত্র থাকিতে বেঁচে,
কোন দুখিনীর রক্ত নিয়েছে, পিশাচের দল চুষে।
কতটা বাকী, কতটা নিয়েছো নিজ রাজ্যের খোঁজ ?
ঋণের বোঝা বাড়িছে তোমার একটু করিয়া রোজ।
বানীর বুকে হাতটি রেখে বলেছো রাজ্যময়,
প্রান থাকিতে মরিতে দিবেনা দুস্থ আর অসহায়।
যাহারা তোমারে নৃপতি করিলো আপন উচ্চ গলে,
মরিছে তাহারা অভাব গিলে, তোমার'ই চক্ষু তলে।