জীবনের সবকিছু আজ তছনছ্ ,
চোখ দুটিও ছলছল করে, মুখের হাসিটাও নেই, শুধু আঁখি জল কেঁদে কেঁদে ঝরে।
বুকের ভিতর কি যেন এক যন্ত্রণা,
বুক ফাটে তবু মুখ ফেটে বের হয়না।
চোখের অবসাধে প্রকাশ করে এক বিষন্নতা
নির্ণয় করতে গেলেও আজ দেখি হাত দুটি আছে বাঁধা
আষ্ঠে-পিষ্ঠে হলেও চাই বাঁচতে, না যেন পারে এই ঘাতক আর নাচতে।
চাই থাকাতে দূরে, তবুও যেন আবার আসে ঘুরে ঘুরে।
জীবনকে গ্রাস করে ফেলেছে এই দুষ্টে ।
নাম কি তার যদি শোন! চমকাবে মন সন্দেহ নাই কোন।
চাইনা বলতে তবু বলি শোন, এ যে হলো এক ঘাতক নামক যার ঋণ
শব্দটা আছে যতো ছোটো ক্ষমতা আছে তার থেকে হাজার হাজার শতো ।
জন্ম হয়ে মৃত্যু হবে তোমার ঠিকই, তবুও এ যেন হবেনা তোমার থেকে গত।
নাম তার ঋন তাইতো মনীষীরা বলেছেন ধরনা কেউ এর ভীম,
হাজার টাকার আয়ের থেকেও উত্তম হবে, শোধ করা তোমার এক টাকার ঋণ।