নিশ্চয় শিউরে উঠে
ভদ্র মানুষেদের আধ-পাকা শরীর।
এ কি অনাচার অত‍্যাচার;
শুনেছ, কুমারী মা!
তেলি পাড়ার স্বপন তেলির মেয়ে!
এতো বড় দুরাচার যায় কি সহা?
চুনকালি মেখে তাড়াও
শহরতলীর বাহিরে দূরে কোথাও!

কিন্তু, মা যে কুমারী সে কি একা?
পিতা এক রয়েছে গোপনে নিশ্চয়!
কে সে চির তাপস কুমার,
দোষ কি নেই কিছু তার,
অপরাধ বা লজ্জা কোনটাই ?

নগ্ন হ‌ওয়ার অধিকার,
শুধুই কি ছিল মেয়েটার?
ছেলে কি কখনো উলঙ্গ হয় না,
তবে কেন কাগজে মেয়েদের নাম?
ক্ষুদার্ত শকুনের মতো ছিন্ন বিচ্ছিন্ন
করে যে,সেই চিৎকার করে বলে;
তুমি বেশ্যা!আমি জানি তুমি বেশ্যা!