লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩ আগস্ট ১৯৯৬
গল্প/কবিতা: ৩টি

সমন্বিত স্কোর

৩.০৪

বিচারক স্কোরঃ ১.৮৪ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.২ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftগল্প - আমার স্বপ্ন (ডিসেম্বর ২০১৬)

খুকি
আমার স্বপ্ন

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.০৪

শিহাবুল ইসলাম

comment ৪  favorite ০  import_contacts ৫৮৬
খুকি আজ খুব করে সেজেছে। টকটকে লাল রঙের একটা ফ্রক পরেছে আর মাথায় লাল রঙের ব্যান্ড। কি দারুন লাগছে খুকিকে!মিঃ আরিফ অবশ্য সাজিয়ে দিয়ে খুব এক্সপার্ট। খুকিকে অন্য দিনের মত সাজিয়ে গুজিয়ে দিয়েছেন,এবার বাইরে বেরুনোর পালা।
খুকি আজ খুব খুশি। আজ বাবার ছুটির দিন। প্রতি ছুটির দিনে খুকি বাবার সাথে ঘুরতে যায়।আজ তার ওপর আবার সপ্তম জন্মদিনে পাওয়া লাল টকটকে ফ্রকটা পরেছে সে।যাদিও খুকি লাল রঙটা চেনে না ।তবুও সে খুশি,আজ সে চিড়িয়া খানা যাবে।
চিড়িয়াখানায় বাবা খুকিকে নিয়ে ঘুরতে লাগল।মাঝে মাঝে কোলে নিয়ে, মাঝে মাঝে ঘাড়ে চড়ে ভালোই মজা পাচ্ছে খুকি। বাবা একেকটা খাঁচার সামনে যায় আর বলে দেয় কোনটা কি। যেমন বানরের খাঁচার সামনে যেতেই বানর ক্যাঁক ক্যাঁক করে উঠল।
-দেখ এটা বানর।
-না,বাবা।বল যেঃ শোন ,এটা বানর ।(খুকি প্রতিবাদ করে)
-আচ্ছা রে মা । শোন এটা বানর। হইছে?
-হ্যাঁ হইছে।
তেমনি ভাবে বাঘ ,সিংহের খাঁচার সামনে গেলেই খুকি বলেদেয় কোনটা কী । খুকি আগেও অবশ্য একবার চিড়িয়াখানায় এসেছে,তাই মনে আছে।খুকি অবশ্য সবগুলোর নাম বলতা পারেনা। যেমন- জিরাফ, গাধা। কারন, এরা তেমন শব্দ করেনা।তাই তার বাবা তাকে বুঝিয়ে বলেছে কোনটা কেমন প্রানী, কেমন দেখতে ।কিন্তু খুকি কখনো কোন প্রানী দেখেনি,জানেনা সেগুলো কেমন দেখতে ,রঙও চেনে না- লাল, নীল।তাও খুকির মনে কোন দুঃখ নেই,বাবা সবসময় তার পাশে আছে যে!চিড়িয়াখানা ঘুরে আজ অনেক মজা পেয়েছে খুকি,শেষমেশ জোর করে ফুচকা খেয়ে বাড়ি ফিরেছে ।

মাঝে মাঝে আরিফ সাহেবের খুব কষ্ট হয়। মা মরা মেয়েটা কীভাবে দিন কাটাচ্ছে!সারাটা দিন ফুপুর সাথেই কাটে তার ।সেই ভয়ার্ত দুপুরের যেদিন পায়েলের পেইন উঠল!ইশ!খুকির দেলিভারির সময়েই...কী দুঃসহ স্মৃতি!থাক আরিফ সাহেব আর সে সব স্মৃতি মনে করতে চান না । ৭বছর কেটে গেছে সেসব হয়। তিনি আপাতত টাকা জমানো নিয়ে টেনশনে আছেন ।টাকা প্রায় জমেই গেছে ,পুরোটা জমালেই অপারেশন।এছাড়া মেয়েটার ভবিষ্যৎ- ও তো আছে ,স্কুলে ভর্তি করাতে হবে এই বয়সেই কী সুন্দর গুছিয়ে সব কথা বলে!এখনো অবশ্য স্কুলে ভর্তি হতে পারত ,কিন্তু ঐসব বিশেষ স্কুলে মেয়েকে দিতে চান না , কষ্ট হয় তার ।

একদিন সকালে উঠে খুকি তার বাবা কে বলছে।
-বাবা আমি না একটা স্বপ্ন দেখেছি।
-অ্যাঁ ?তুই স্বপ্ন দেখেছিস?নাকি আবার শুনেছিস?(হেসে হেসে)
-না,না।দেখেছি দেখেছি।
-তুই কী স্বপ্ন দেখিসরে মা ? রঙ্গীন না সাদাকালো ? মানুষজন থাকে ?
-রঙ্গীন ,সম্পুর্ন রঙ্গীন ।কিন্তু মানুষজন ছিল না ।
তাহলে কী ছিল? কী দেখলি ?
-একটা পাখি ছিল,রঙিন পাখি ।উড়ে যাচ্ছে সবুজ পাহাড়ের উপর দিয়ে। সাথে আমিও উড়তিছি,আমার সাদা দুইটা ডানা ছিল।আচ্ছা বাবা ?পাহাড় তো সবুজ-ই, তাই না ?
-হ্যাঁ রেমা, সবুজ ।দেখিস একদিন তোর স্বপ্ন সত্যিহবে।
মাঝে মঝেই খুকি এমন ঘুম থেকে উঠে উঠে বাবাকে তার স্বপ্নের কথা বলে । একদিন শুনিয়েছিল নীল রঙের সমুদ্রের ঘণ্টার প্র ঘণ্টা নিঃশব্দে ডুবে থাকার স্বপ্ন । উদ্ভট উদ্ভট স্বপ্ন দেখে মা মরা মেয়েটা!
এরপর কেটে গেছে বেশ কটা দিন ।
-বাব, এটাই কি বানর যেটা ক্যাঁক ক্যাঁক শব্দ করত?
-হ্যাঁ রে মা ।
-ঘুরতে ঘুরতে একটা পাখির খাচায় এসে চোখ আটকে যায় খুকির ।
-এটাই তো সেই পাখি যেটা আমি স্বপ্নে দেখেছিলাম ।হ্যা,এটাই।
খুকি কোল থেকে নেমে হঠাত-ই দৌড়দিল।তার খুশি আর দেখে কে ?সে হয়ত পাখিটার মত উড়তে চাইছে।আরিফ সাহেবও খুকির পেছনে পেছনে দৌড়চ্ছেন।কিন্তু কে বেশি খুশি তা বোঝা যাচ্ছে না খুকি যেন সেই পাহাড়ের ওপর আকাশে উড়ছে আজ ,কিন্তু সাদা ডানা দুটো নেই।

আজ খুকির স্বপ্ন সত্যি হ্যেছে।খুকির কালময় জীবন আজ সত্যি রঙিন!!!

advertisement

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • এম এ রউফ
    এম এ রউফ একটু এলোমেলো লেগেছে ভাই...একদিন কিভাবে তার স্বপ্ন পূরণ হবে সে পাহাড়ের উপর উড়ে বেড়াবে...।যাহোক লেখার গাঁথুনি ঠিক আছে। লিখতে থাকেন...
    প্রত্যুত্তর . ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • জয় শর্মা
    জয় শর্মা গল্পের প্লট টা দারুণ! সুন্দর ভাবনার অনবদ্য উপস্থাপন! তবে আরো কিছুটা উদাহরণ দিয়ে খোলাসা করা উচিৎ ছিল ব্যাপার টা, যাই হোক- 'অন্যের লেখা পড়ুন, খ্যাতিমান লেখদের লেখা পড়ুন, সব গুছানো হয়ে যাবে।' শুভেচ্ছা ও ভোট রইল।
    প্রত্যুত্তর . ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • সাইফুল  ইসলাম
    সাইফুল ইসলাম খুব ভাল লাগলো ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর একটি লেহার জন্য ভোটে রেখে গেলাম
    প্রত্যুত্তর . ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • গোবিন্দ বীন
    গোবিন্দ বীন ভাল লাগল,ভোট রেখে গেলাম।আমার কবিতা পড়ার আমন্ত্রন রইল।
    প্রত্যুত্তর . ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

advertisement