জীবনের বায়ান্ন বছরতো কেটে দিয়েছি পথ চেয়ে
আর কত চলবে জীবন অলস ভাবে
বয়সের ভারে কাশির মাও চলে গেছে অনেক আগে
ধুলা বালির সাথে মিশে গেছে মিশ্রিত দেহ তার
মৃতু মাটির গন্ধে বড় হওয়া ছোট বৃক্ষটাকে
বায়ান্ন বছর ধরে দেখেছি এভাবে
আমার মতো বেড়েছে বয়স তারও।
বয়সের চাপা স্বরে সূর্যকে করেছি লাল
পথের সব ধুলিকনা ঢেউয়ে ঢেউয়ে করে উত্তাল
জীবনের গতি ঝুলে আছে লোকালয়ের খেয়াঘাটে
দূষর রাত্রীর কালো গন্ধে জেগে ওঠে জোনাকিরা
আর প্রায় মৃত্যু গলিত সাপের লাশ শুয়ে আছে
অচেতনভাবে। বিষাক্ত ধোঁয়ার কাটপাটা রোদে
শুকিয়ে গেছে মরুভূমির জল।
তোমার রাত্রির এই ক্লান্ত স্তদ্ধতা ছেড়ে এস
যেখানে প্রভাতের অরণ্য জীবিত আছে
প্রতীক্ষার ধূসর ভুলে তীক্ষè নীল আগুনের
অশান্ত প্রতীক্ষায় আছি তোমার নিঃসঙ্গতায়।