মনে পড়ে প্রিয়তমা, বৈশাখ এলেই দেখা হতো ,
কথা হতো আমাদের সেই হলুদ-রোদের ছায়ায় ভাললাগার হাটে,
তোমার হাতে শোভা পেত কখনো সাদা কখনো বা লাল গোলাপ
সাথে অনেক কথার একটি ভাঁজ করা চিঠিতে,
হারিয়ে যেতাম দুজনে একদিন এমনি করে , ছুটে যেত মন দুজনের চকিত আঁখির ট্রেনে ,
আমার সকল পথচলায়,আনন্দ -বেদনায় , একা এই নগরে
অন্ধকারকে আলো করে দিয়ে তবুও বৈশাখ আসে ,বৈশাখ যায় - এসেই আবার তোমার নির্ভেজাল ভালবাসা আমাকে এবারও ছুয়ে দিয়ে গেলে।

শুনেছি তুমিও এই ব্যস্ত নগরেই আছ, এখানেই এখন ফুল ফুটাও ,
ইট-পাথরের সাথে
এই আমি’র স্মৃতিকেও সিলগালা করে করে দূরে ছুড়ে ফেলে রেখেছ ,
ও আমার বিশ^াসীনি ,একদিন ভালবেসেছি বলেই এখনও চেয়ে আছি চেনা খুব ঐ দক্ষিনের হাটে,
যেখানে আজও কাল-বৈশাখী ঝড়ের তান্ডবে চিনে ফেলি আমার অতি আপন সৌরভ,
অচেনা গলিতেও তোমার চোখ জোড়া ডাকে আমাকে নিভৃতে - এই মরু-অন্তরে।