“বনলতা” নাম নিয়ে শতরূপা তুমি
শতরূপ ধরে আছো এই দেহের গভীরতার গভীরে,
হৃদয়স্পর্শী ক্যানভাসের মঞ্চে দক্ষ অভিনেত্রী সেজে
প্রতিনিয়ত অভিনয় করে যাও প্রতিক্ষণে।

রূপের বনলতার সাঁঝবেলা হয়ে নিয়েছিলে এ মন
আমার সহস্র শত যাতনা দূরে ঠেলে দিয়ে,
তোমার জীবন সঙ্গী করে নিয়ে গেলে ওপথে
ঘুরিয়ে দিলে তুমি বনলতা এ জীবনের মোহনা।

আমার স্বপ্নের ভালোবাসার রাজ প্রসাদের বনলতা হয়ে সাজালে আমায়
হাজারো স্বপ্ন বাধালে আশার দ্বারে,
সুখের স্বপ্নের হিমালয়ের খেয়ায় নিয়ে গেলে ভাসিয়ে
এ হৃদয়ে অনন্তকালের জমিয়ে থাকা অনূভুতি গুলো জাগালে নতুন করে।

বনলতা তুমি অভিনয়ের বনলতা হয়ে বুঝালে আমায়
মহাকাব্যের কাব্যিক পৃথিবীর নাট্যমঞ্চের জীবনটা,
অভিনয় থেকে অবসর নিয়ে
মেরে দিয়ে গেলে এই মনটা।

সুখের বনলতা আজ হারিয়ে গেছে
জীবনের অসমাপ্ত ডায়েরি থেকে,
কষ্টের বন্যায় ভেসে যাই আমি
এ মনে তোমার সমাধি এঁকে।

যন্ত্রণার বনলতা ভেসে যাবে তুমি
ঘৃণার বনলতায় যদি জাগে এ চোখে,
তবুও কখনো দেবনা অভিশাপ
বেঁচে থাক বনলতা সদা তুমি সুখে।