আকাশের বিশালতাকে
আমি সংকীর্ণ দেখেছি প্রতিনিয়ত
দক্ষিণা হাওয়ার শীতল স্পর্শ
আমার তনু-মনকে শিহরিত করতে পারে নি কভু
সবুজের সমারোহে, নীলের বেষ্টনীতে
আমি উদাস, হতাশ
অসীম শূণ্যতার অক্টোপাসে আমি আবদ্ধ।

বিস্তৃর্ণ খেলার মাঠের আহ্বানে
আমি সাড়া দিতে পারি নি কভু
নদীর ঢেউয়ের সাথেও হয় নি অভিসার
পূর্ণিমার জোসনাস্নানে করি নি আবগাহন
চাঁদ এসে কভু দেয় নি আমাকে টিপ।

গাঁয়ের আঁকা বাঁকা মেঠো পথে
হাটখোলার গরম তাওয়ার জিলেপির প্যাচে
কিংবা স্কুল শেষে ছুটির আমেজে
পাই নি কভু বাবার স্নেহের পরশ
কখনো ডাকে নি বাবা আমায়
আয় খোকা বুকে আয়।

খোদা তোমার চরণে
দু'ফোটা তপ্তজল দিয়ে যাচ্ছি আজ
আমার বাবার বাড়ির সৌন্দর্য
জান্নাতি রঙ্গে দাও করে কারুকাজ।