তুমি যেদিন সন্ধ্যা প্রদীপ হাতে লয়ে দাড়ায়ে ছিলে
ওই হিজলের ক্লান্ত ছায়ার তলে,
অতলান্ত জীবনের সব কেনা বেচা ঘুচিয়ে -
সেদিন আমি পারি নি আসতে তোমার কাছে,
আর গোধূলি বেলায় -
পারি নি ভেসে যেতে তোমায় নিয়ে
সুদূর কাঙ্ক্ষিত ওই হিম চাঁদের দেশে।

তবুও আজো তুমি রয়েছ
দাড়ায়ে মহাকাল ধরে একা ই
অসীম অপেক্ষার সহস্র বিনিদ্র রজনী-
যেন জন্ম থেকে জন্মাতর, তুমি আর আমি এক বিচ্ছিন্ন প্রনয়ের সাক্ষী ছিলাম -
এরপর আমি ভেবেছি যতবার,
বিলম্বে আসবো ফিরে আবার,
হয়ত কাক পক্ষী তে ও পাবে না টের,
তা বলে কারাভোগও করেছি আমি বিবেকের কারাগারে কতবার,
নীরবে কেঁদেছি ও কত বিষন্ন মোমের রাত,
একা আমি দু হাতে আঁকড়ে,
আমাদের শেষ প্রেমের অঞ্জলি -
শুধুই ফিরতে পারি নি।