বৃত্তক্ষেত্রের মাঝে বিন্ধু আছে একটি,
কেন্দ্রবিন্দু নামে সেই তো বৃত্তের আঁখি,
তাকে কেন্দ্র করে ঘুরে চলে বক্র রেখা,
তাকে ছাড়া বৃত্ত হারায় নিজ স্বত্বাটা।
বিন্দু ছাড়া রেখা নামই থাকে ললাটে।
যেই চাকা উন্মেষের ইতিহাস লেখে ,
সে বৃত্তেরই আরেকরূপ রাখো শিখে।
মা-কে আঁকি আমি ঐ বিন্দুর দৃশ্যপটে।


“মা”-সে শত দুখের মাঝে সুখের ছোঁয়া,
সমস্ত সুন্দরের উপরে একজনা,
রোদসীতে সে-ই স্বপ্ন সুখ করুণিমা,
তাকে পাওয়া যে পরম এক পাওয়া।
তাহার সাথে হবে কি কারো তুলনা?
কেন্দ্রবিন্দু রূপে যিনি, তিনি আমার মা।