সকাল হল, ওঠো, দেখো সূর্যালোকের খেলা
ঘরের চার দেয়ালের মাঝে তোমার বন্দীশালা।
তোমার কাছে এ আলোর হয়তো কোন মূল্য নেই
তবু সূর্যের সংকল্প তার কথা সে রাখবেই।
তোমার বন্দী মনে একটু স্নেহের পরশ দিতে
হোক না তা শরতে, গ্রীষ্মে অথবা শীতে।
নরম আলোয় সূর্যস্নাত করতে তোমার মন
সূর্যদেবের তার জন্য অপেক্ষা আজীবন।
তুমি যদি গ্রহণ না করো প্রভাতের এ আলো
সূর্যের তবে মুখ ঢাকবে মেঘের পর্দা কালো।
তোমার দুখে বিষণ্ণ রবি আপন অংশুমালী
তুমি না চাইলে তিনি এ আলো ধরায় দিবে না ঢালি।
তাকিয়ে দেখ জানালা দিয়ে সূর্যের দিকে চেয়ে
সূর্য আজ হাসবে আলোয় তোমার দেখা পেয়ে।
তুমি গ্রহণ না করলে সূর্য হয়ে রবে আজ ব্যর্থ
এই সুন্দর পৃথিবীর আর থাকবে না কোন অর্থ।
জানি তুমি আজ বিষণ্ণ, মনটা তোমার খারাপ
তবু তুমি দিও নাকো আজ প্রকৃতিকে অমর্যাদার শাপ।
পুরো পৃথিবী আজ চেয়ে আছে তোমার দিকে আঁখি মেলে
তুমি আজ দিও নাকো এই প্রকৃতিকে হেলে ফেলে।
হয়তো যদি তুমি একবার দেখ প্রকৃতির এই মুখ
ভুলে যাবে সব বেদনা কালো, জরা, ভয় আর দুখ।
দেখ দেখ আজ কেউ তোমায় করবেনা আর বারণ
মনের স্বাধীনতায় তুমি করো আজ সূর্যালোকে অবগাহন।।।