কবে থেকে গাছটায় পড়ে নি এক ফোটা জল,
ডালপালা শুকিয়ে খটখটে হয়ে গেছে।
টিকে আছে শুধু নগ্ন দেহখানি কোমল মৃত্তিকায়,
বাঁচায় স্বপ্ন নিয়ে চেয়ে আছে।

কখন মরেছে জল না পেয়ে কখন ও বৃষ্টিতে,
ঋতু বদলের প্রকৃতির লীলাখেলায়।
কেঁদে কেঁদে বলেছে জল দাও জল দাও আমায়,
রাঙায়নি সূর্যের সোনালি ছোঁয়ায়।

হাজারও পথিক হেঁটে চলেছে সে পথে তাকায়নি
একবার, দেখেনি বৃক্ষের শোকের ছায়া।
দিবারাত্রি অশ্রু ফেলে কষ্ট মেলেছে তার,
ছাড়েনি আপন প্রানের মায়া।

সেই শুকনো গাছটায় গজিয়েছে আবার সবুজ পাতা,
নতুন করে ফিরে পেয়েছে বাঁচার স্বপ্ন।
সবুজ পাতার দোলায় দোলবে মন প্রশান্তির হাওয়ায়,
নীল আকাশে হারিয়ে ঘিরে থাকা দুঃস্বপ্ন।