নিজেকে আবেগের প্রলয়ে টুকরো করার আগে,
অভিমানের আঁচে অনুভূতিগুলো ভেজে নাও,
স্মৃতি থেকে তৈলবৎ মাখন দিতে পার যদি চাও,
দিতে পারো প্রাপ্তি ও অপ্রাপ্তির সামান্য মসলাও,
যদি অকস্মাৎ ক্রোধের নীলাভ আগুন জ্বালাও,
তাহলে অনুরাগের পুরোটা সেখানে ঝলসে নাও।

যদি তুমি অক্ষমতার ভার অন্যের উপর চাপাও,
তবে খানিকটা ভার নিজেই তুলে পরখ করে নাও।
পিছু ফিরে অতীতকে দেখে নিতে পারো যদি চাও,
তোমার দুঃসময়ে - হাত ধরেছে কি কেউ কোথাও? 


পলকা বিশ্বাসের জোরে এইযে তুমি সিদ্ধান্ত নাও,
তোমার অল্প প্রাপ্তিতে অবদান নেই আর কারও!
দিবালোকের মতো সত্যকে কিভাবে তুমি উড়াও?
ঋণী আমরা সকলে, যতই তুমি অস্বীকার রটাও। 

ক্রোধে কিংবা ঈর্ষায় যতই নিজেকে ঝলসে নাও,
কিংবা অভিমানের গুনগুন অহর্নিশি বাজাও,
কিংবা আত্মদহন এড়িয়ে মানবতাকে মাড়াও,
কৃতঘ্ন স্বত্তা তোমায় পোড়াবেই - জেনে নাও। 


প্রাপ্তির মসলায় যখনই তৈলাক্ত ভাবনা ভাসাও,
তখনই তুমি অবজ্ঞার অকৃতজ্ঞ স্বত্বাকে ছুঁয়ে দাও,
প্রাপ্তির মুলে বিন্দু অবদানগুলো তুমি উড়িয়ে দাও,
আত্মদহন তোমার জন্য নয়, নিশ্চিত যেনে নাও।