বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৩ অক্টোবর ১৯৯৮
গল্প/কবিতা: ৫টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

কালো হাত

আঁধার অক্টোবর ২০১৭

মধ্যরাতের স্বপ্ন

ভৌতিক সেপ্টেম্বর ২০১৭

মুক্তির স্বপ্ন

কামনা আগস্ট ২০১৭

কবিতা - ভয় (সেপ্টেম্বর ২০১৭)

মোট ভোট রুপকথা

দেয়াল ঘড়ি
comment ৭  favorite ০  import_contacts ১০২
(তুমি বসে আছ একা, দেখে আমি)

তোমার পাশে এসে বসে
আমি বলছি তোমায় হেসে,
আমি তোমায় ভালবাসি ।

তুমি বললে হেসে,
" আহ! রাখ তোমার মজা । "
তার পর, হেসেই উড়িয়ে দিলে ।

কিই বা হত ক্ষতি
আমায় একটু ভালবেসে নিলে ।

আমি এবার মুখটা একটু করে ভারি
বললাম, "আমি তোমায় ভালবাসি
সে কি ভারি মজার কথা হোল,
যাও তোমার সঙ্গে আমার আড়ি । "

তুমি বললে,
" না, সে তো তুমি রোজই আমায় বল ।
আমিও তোমায় ভালবাসি,
না বললেই কি বা ক্ষতি কি হোল ।"

কিছুক্ষণ চুপটি করে রয়ে
আমি বললাম, "না, সেই ভালবাসা নয় ।"

তুমি বললে,
" ভালবাসারও কি রকম ফের হয় ?"

আমি বললাম,
" হয় বইকি ।"

তুমি বললে,
"বল তবে শুনি,
তোমার মুখে হে গুণী ।"

আমি বললাম, " আমি জানি না কো ।
কেবল জানি আমি তোমায় ভালবাসি,
স্বপ্নে আমি দেখি তোমায়,
তোমায় নিয়েই আকাশে ভাসি
তোমায় নিয়েই বাধব আমি ঘর ।"

মুহূর্তেই করে দিয়ে আমায় পর
তুমি বললে, " সে হয় না কো ।"

আমি বললাম,
"কেন?
আমি কি বড়ই খারাপ।"

তুমি বললে, " নাহ ।
আমিও কাউকে ভালবাসি সে কথা টি জেন।"

আর কোন কথা হোল না ।
নীরবতা ছড়া আমার জীবনে আর কিছুই রইল না ।

(অনেকদিন পর আবার দেখা )

ভাগ্য দেখ
আজ আমি তোমার ঘরে
এসেছি আবার
তোমার মেয়ে এসে পরে
বললে আমায়, “ বাবা না কি আসবে পরে
এ বেলাতে জেন উৎপাত না করি আর ।”

আমি বললাম, “ তোমার মা কে ডাক।
তোমার বাবার, দরকার নেই কো।”

তুমি আমায় দেখেই চুপটি করে গেল ।
আমিও রইলাম চুপ করে ।
তুমি বললে, “ আসুন ভিতরের ঘরে”
একটু চা খেয়ে যান,
'ও' আসতে দেরি নেই ।
কিছুক্ষণ না হয় অপেক্ষা করলেন ভিতরেই”

আমি ভাবলাম,
‘যান’
তুমি আজ আপনি হোল,
আপন হোল পর,
ভালবাসা নাই বা দিলে
যেমনে আমি চেয়েছিলাম,
মনে নাহয় রাখতে বন্ধু ভেবে জীবন ভর।
ভাবলাম, চলেই যাব।
হোল কই,
তোমার ডাকে সারা না দিয়ে আমি যাব কই ।
তুমি, না হয় করলেই মোরে পর,
আমি, তো তোমাই ভালবেসেছি জীবন ভর

কত কথা হোল,
পুরানো নতুন, হাজার বোল
আবার নতুন করে স্মৃতিতে এলো ।

তুমি বললে,
“ সংসারের কি খবর?”

আমি বললাম,
“ এই তো একা আছি বেশ জবর”

তুমি আবার হেসে এক গাল
বললে, “ সেই কি কখনো হয় ”

আমি বললাম,
“ আমি চির কুমারই রইলাম না হয়”

তুমি বললে “ছাড় ও সব
কেন তুমি এলে?”

আমি বললেম, “
সত্যই বলব,
বল, রাগ করবে না বললে ।
বলি তবে, তোমার অভয় পেলে ।”

তুমি বললে,
“ রাগ করব কেন?
আমার কাছে তো আস নি।
যদি আসতেই,
তবে আমার বিয়ের দিন কেন ফাকি দিলে”

আমি বললাম,
“ সত্যই বলি
তোমার কাছেই এসেছি,
তোমায় ভালবেসোই আমি আবার এসেছি।
তোমার জন্যই আমি মরেছি, হেসে ।
সেই সাত বছর আগে,
আমি ফাকি দেই নিকো, তুমিই আমায় দিলে ।”

তুমি বললে,
“ হেঁয়ালি ছাড় ।”
আমি বললাম,
“ আমার হাত টা একটু ধর ।”

হাত টা আমার ধরে,
উঠলে তুমি চিৎকার করে,
“একি, এত ঠাণ্ডা কেন”

আমি বললাম,
“ আমি মৃত ।”

আর কোন কথা হোল না
একটা দমাক হওয়া এসে
আমায় উড়িয়ে নিয়ে গেল শেষে ।

আমি নেই, কোথাও নেই,
তুমি আছ আগের মত সেই।

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন