বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৮ মে ১৯৯৫
গল্প/কবিতা: ৭টি

তুমি নারী

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১৭

মানুষ তুমি মানুষ হলে না

আঁধার অক্টোবর ২০১৭

হোসনে আরা

কামনা আগস্ট ২০১৭

কবিতা - ভয় (সেপ্টেম্বর ২০১৭)

ভয়ের ভয়াবহতা

নূরনবী
comment ৪  favorite ০  import_contacts ৩৩৩
ক্রমশে অন্ধকার আসে নারীর দরজায়।
অসংখ্য কোলাহল ধীর পায়ে পিছু হটে নিস্তব্ধতার স্পর্ধায়।
নারীর ভয়ার্ত স্পর্শ, নারীর সুরুচিকর অবয়বে!
আজকাল নারী যে কেবল নারী; মানুষ নয় একদম।
কতগুলো পিশাচের মত মানুষ অথবা মানুষের মত পিশাচ
নারীর শরীরে খুঁজে নিয়েছে ‘ইঁদুর-বেড়াল’ খেলা।
তাই ভয়ের উচ্ছৃঙ্খল পদচারনা
নারীর সমস্ত নীলাভ মুখে।
এই বুঝি পিঁপড়ের মত নিঃশব্দে এসে কেউ অথবা কারা
কামড় বসালো আবৃত সকল লজ্জায়!
ভয়ংকর উল্লাসে জানান দিলো
এ অনাকাঙ্ক্ষিত ভয়ের ভয়াবহতা।
নিকৃষ্ট পাপের দল এসে ঘাঁটি করলো নারীর সবটুকু নারীত্বে!
এ পাপের দায় যেন, শুধু আত্মহত্যা দিয়েই ঘোচা যায়।
বেঁচে থাকলে ধর্ষিতা নামে আরেকটি নাম হবে যে নারীর!
আজ নারীর আত্মচিৎকারে একটি প্রশ্ন মহাকালময়
এ ভয়ের ভয়াবহতা থেকে কবে মুক্তি পাবে নারী?
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন