তুমি কি দেখেছো কবে ?
একটি ঘাস ফুল ফুটেছিলো-তোমার কপোলে।
ঘাসফুলটা নড়ছিলো তোমার নাসিকার তির তির কম্পনে।
নিশ্বাসের কাছাকাছি পেঁৗছে, খুঁজে পাই।
এক ফোটা জল- নাকের ডগায় জমা একটি স্বেদ বিন্দু।

সময়কে অস্বীকার করে, ব্যসত্দ ছিলেম তোমাতে
কানে কানে বলেছিলাম....
খাক হয়ে যাক সব - তুমি আছো নিরাপদ
আমার বাহু বন্ধনে।
তোমার বিশাল ক্যানভাসে দেখেছিলাম
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বাংলাকে।

বাতাসে উড়ে আসা ছাই....আর রক্তের গন্ধ
ফিরেছিলো সম্বিত এক তরম্ননের - চারিদিকে যুদ্ধ - ভালবাসা নিষিদ্ধ।
গোলাপের সময় নেই আর...তাই রাইফেল হাতে নেয়া।

তারপর........ জানা ইতিহাস। বিজয়ীর বেশে ফেরা।

ৰত-বিৰত দেশ-আমার মা, আলুথালু তুমি-আমার প্রেয়সী।
স্বাধীনতায় মুক্ত হলো মা, আর তুমি?
‘বিশুদ্ধ হলে...আমার ভালবাসা শুষে নিল সব গ্লানি’ !!!
আমার কাছে আজো 'স্বাধীনতা' আর 'ভালবাসা' একই রীতি
তাইতো তোমাতে এখনো খুঁজি আমার দেশের সবুজ পটভূমি !