লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৫ মার্চ ১৯৯০
গল্প/কবিতা: ৩টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

২৮

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftবর্ষা (আগস্ট ২০১১)

মেঘাচ্ছন্ন প্রহর...
বর্ষা

সংখ্যা

মোট ভোট ২৮

শুকনো পাতা

comment ১৮  favorite ১  import_contacts ১,১৮৮
আকাশ আজকে ভীষন ভাবে সেজেছে,কিছুক্ষন পর পর মৃদু বাতাস বইছে...কিন্তু র্তুমি এভাবে বসে আছ কেন?কি হয়েছে?''
কোন দিকে না তাকিয়েই বললাম,কিছু হয়নি।কিছুটা অবাক হওয়া কন্ঠে আবার বলল,
;কিছু হয়নি?তাহলে এভাবে ঘরে বসে আছ যে?তুমিতো এভাবে ঘরে বসে থাকার মেয়ে নও।
আমি একই ভাবে আবার বললাম,
;কিছু হয়নি আমার,এমনিই বসে আছি।
একটু পর আবার বলল,
;এই শুনছ?মেঘ ডাকছে তোমাকে,এসো বাইরে এসো।
আমি কিছু না বলে একই ভাবে বসে রইলাম,খানিক বাদে বললাম,
;আমার কিছুই ভাল লাগছেনা দোয়েল,আকাশ দেখতেও ইচ্ছে হচ্ছেনা,তুমি এখন যাও।
বলে উঠে দাড়ালাম,ঘাড় ঘুরিয়ে দেখি দোয়েল নেই,চলে গেছে।জানালার পাশ থেকে সরে আসতে আসতে মনে হল একবার বারান্দায় যাই,মেঘকে দেখে আসি,কি ভেবে আবার বললাম নাহ যাবনা,দেখবনা মেঘের রুপ।
একটু পর দরজা খুলে বারান্দায় গেলাম,আমাকে দেখে দোয়েল বলল,
;যাক এসেছ তাহলে,তোমার জন্যই অপেক্ষা করছে মেঘ।
আমি বললাম,
;দোয়েল,আমার মেঘের সাথে কথা নাই,কোন কথা নাই।
মেঘ তখন অবাক হয়ে বলে,
;সেকি কথা?কেন কি হয়েছে গো?!
;মেঘ,তোমার সাথে আমার কোন কথা নেই,তুমি এখন আর আমার ডাক শুননা,তোমায় ডাকলেও এখন আর পাই না।
মেঘ একই ভাবে বলে,
;আমিতো রোজই আসি তোমার আকাশে,কখনো বৃষ্টিকে দিয়ে যাই কিন্তু তুমিইতো থাকোনা,তুমি ব্যাস্ত থাকো তোমার মাঝে...

বলেই মেঘ হেসে দিল,মেঘ ভাল করেই জানে আমি মেঘের হাসি দেখলে আর রাগ করে থাকবো না,মেঘের সেই মন ভুলানো হাসির মাঝে আমার সব রাগ হারিয়ে যায়।তাই আমিও হেসে তাকাল্ম মেঘের দিকে।মেঘ বলল,
;তুমি ঘরে কেন?খোলা আকাশের নিচে আসো,দেখে যাও আজ কতো সুন্দর করে সেজেছে প্রকৃতি...
তাই নাকি?!আমি এক দৌড়ে ছাদে চলে এলাম...একি?!!!সত্যিইতো...বিশাল আকাশ জুড়ে কালো মেঘ হাসছে,আর ভালোবাসার মুক্ত আবেশ নিয়ে বাতাস ছুঁইয়ে যাচ্ছে মন...অসাধারন সুখ বিরাজ করছে প্রকৃতিতে আজ,যা শুধু অনুভব করা যায়...
আমি মুক্ত পাখির মত ডানা মেলে চোখ বন্ধ করে অনুভব করার চেষ্টা করছি সেই সুখ...
ছুঁইয়ে দিতে চাইছি সেই সুখের আকাশটাকে...
বোধহয় পারলামও তা করতে,আর তাই নেমে এলো ঝুম বৃষ্টি...আমার খোলা চুলের অরন্যে বৃষ্টি ছুঁইয়ে দিয়ে গেল অবারিত এক সুখের পরশ,আমার নুপুরের ছন্দের তালে নেচে ঊঠল প্রকৃতি,জানান দিয়ে গেল দক্ষিনা হাওয়া...
বরষা...হ্যা,বরষা সত্যিই এলো...আমার আঙ্গিনায়...
আমার যত্নে গড়া বাগানে কদম ফুলের হাসি ছড়িয়ে দিতে,বৃষ্টির রিনি ঝিনি আবেশ ছড়িয়ে দিতে...বৃষ্টি ভেজা আকাশে রংধনুর হাসি নিয়ে...আর......
এসো নীপবনে...
ছায়া বীথির তলে এসো
করো স্নান নব ধারা জলে...

advertisement

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement