লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২১ জুন ১৯৮১
গল্প/কবিতা: ১টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftনববর্ষ (এপ্রিল ২০১৮)

নববর্ষের সাঁজ
নববর্ষ

সংখ্যা

আব্দুল হাদী Tuhin

comment ১  favorite ০  import_contacts ৬১
নববর্ষের সাঁজ

বর্ষ কে আজ নতুন করে
সাঁজায় বিশ্ববাসি,
রং তামাশা দেখে ওদের
শুধু যে পায় হাসি।

নাচে গায় ফুর্তি করে
নেশায় মত্ত হয়ে,
জোচ্ছুরি আর ব্যবিচার
নিঃস্বরা যায় সয়ে।

নব বর্ষ বরণ করার
এই রিতি যদি হয়,
পূর্ণ বর্ষ কেমন যাবে
সঞ্চিত হল ভয়।




নববর্ষের আগমনে

নববর্ষের আগমনে
ব্যস্থ যে সবাই
নবরূপে বর্ষকে আজ
শুভেচ্ছা জানাই।

নববর্ষের আগমনে
পেয়ে মহানন্দ
নতুনত্বের ঢেউয়ে মোরা
ভাসাই নিরানন্দ।

নববর্ষের আগমনে
নাচি, গাই গান
নতুন মধুর সুর দিয়ে
ভরবো মোদের প্রাণ।

নববর্ষের আগমনে
হঠাবো কুসংষ্কার
সবাই মিলে গড়ব আজ
নতুন এক সংসার।


বৈশাখের রং

বৈশাখী আজ মেতেছে দেখ
উর্মি সম বীনে
তেপান্তরে চোঁখ দুটি মোর
ব্যথিত উল্লাসে ঋণে।

রং বেরংয়ের আয়োজন
আর মুর্চ্ছনা সুরের
উৎসবে উৎসবে আলোড়িত
হর্ষ আর ক্ষীণ ধংসের।

সৈশাখী বজ্রের তালে তালে
চলে মদ জুয়া আফিম
মভ্যতা বিকাশে ইহা
প্রছন্ড বিষের হালিম।

চাই আমি বৈশাখ কাটুক জড়তা,
বৈশাখ যেন বিলায়ে দেয় নৈতিকতা।



অদ্ভূত বাঙালিয়ানা

ভিনদেশী কৃষ্টিতে
ডুবে থাকি হরদম।
আমরা যে বাঙালি
ভুলে যাই একদম।

হাই-হ্যালো, আরও যত
থ্যাংক ইউ, গুড বাই,
স্মার্টনেস বাড়াতে যে
হিন্দীতে গান গাই।

আদর্শে বাঙালি
বাঙালিপনা,
পহেলা বৈশাখে
করি ঘোষণা।

দোসরা বৈশাখ থেকে
শেষ দিন চৈত্র,
আমাদের রুপ-রস-গন্ধে
আজব বৈচিত্র!

একদিন প্রতিদিন
যতদিন আছি,
বাঙালি হয়েই যেন
উঁচু শিরে বাঁচি।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement