লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
গল্প/কবিতা: ৫২টি

সমন্বিত স্কোর

৫.২৫

বিচারক স্কোরঃ ৩.১ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.১৫ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftবাবা (জুন ২০১২)

ডাহুকের বাবা
বাবা

সংখ্যা

মোট ভোট ৮৬ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৫.২৫

খন্দকার আনিসুর রহমান জ্যোতি

comment ৪৮  favorite ১  import_contacts ১,৫৩৪
প্রজন্মের আবাসন গড়ে জোড়া ডাহুকের ঠোঁট
খড়কুটোর গাঁথুনি দেয় করে ওলোট পালোট,
শীর্ণ কায়া লতা গুল্ম নিয়ে ধূসর ঘাসের দেহ
বাসা বাঁধে জলজ বনে যেন পায়না খুঁজে কেহ,
পাতার সুতার কারুকাজ তাতে আঁকিয়ের বুনন
পালা করে বাবা মা সেই আঁকিরে দেয় ওম,
অবশেষে শ্বেত পাথরের কঠিন দেয়াল খানা
ভেদ করে বেরিয়ে আসে ডাহুকের ছানা।

হলুদ চক্ষু কচি মুখ যেন হাঙ্গর সদৃশ
জন্মেই জানিয়ে দেয় খাদ্যের নোটিশ,
তামাদি ক্ষুধার জের ধরে তীব্র চিৎকার করে
বাবা মা'র কাছে খেতে চায় কান্না মাখা সুরে,
বাবা মা ক্ষুধার্ত সেই কোচি ঠোঁটের মোহনায়
নিজ থলিতে জমা খাবার পরম স্নেহে উগ্লায়।

তারপর ক্ষণিক নীরব হয় পদ্ম শালুক বন
ডাহুক পাখীর ছোট্ট ঘরে আজ খুশির প্লাবন,
এভাবে দিন আসে দিন যায় রাত আসে ঘরে
বাবা মা'র আদর পেয়ে ওঠে বাচ্চা দুটো বেড়ে।

হঠাৎ একদিন মা'ডাহুকীর শঙ্কা মনের ঘুচেনা,
সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসে ওদের বাবা ফিরে আসেনা!
বাচ্চাদের আনতে খাবার বাবা ডাহুক তার
গ্যাছে বহু দুর ঐ... কচুরী বনের ভেতর।

আবার রাত শেষে ভোর হয় পদ্ম শালুক বনে
অজানা আশঙ্কায় ডাহুকী দিনের প্রহর গোনে,
সময়ের পেন্ডুলাম দোল খায় ডাহুকীর মনে
অপেক্ষার প্রহর শুকায় পদ্ম পাতার উঠোনে,
বাচ্চা দুটো আগলে বুকে এদিক ওদিক চায়
ঝাপসা চোখে দেখে দুরে ঐ শিকারিরা যায়!
তবে কি ডাহুক তার পা দিয়েছে মানুষের ফাঁদে ?
বাবা হারা বাচ্চা দুটো শুধু ক্ষুধার জ্বালায় কাঁদে।

বাচ্চাদের ফেলে পারেনা যে যেতে খাদ্যের খোঁজে মা
পাষণ্ড মানুষ কেবল নিজের স্বার্থ বোঝে আর কারো না,
ফাঁদ পেতে যারা পাখী ধরে খায় সে মানুষ কি জানেনা
তদেরও ঘরে আছে সন্তান আছে তাদেরও ঘরে বাবা মা ?

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement